বিজ্ঞানীরা জনসাধারণকে আতঙ্কিত না হওয়ার আবেদন জানিয়ে ঘোষণা করেছেন, যে এই ভাইরাস কদাচিত্ এক মানুষের শরীর থেকে অন্য মানুষের শরীরে প্রবেশ করে. জিয়ানসু প্রদেশের ৩২-বছর বয়স্কা মহিলা বার্ড ফ্লু-তে আক্রান্ত হওয়ার খবর দেননি. সুতরাং, তিনি খুব সম্ভবত তার রোগাক্রান্ত পিতার দ্বারা সংক্রামিত হয়েছিলেন. ভাইরাসটির যে মানুষের থেকে মানুষের মধ্যে সংক্রামণ বিরল ঘটনা, তার বাড়তি প্রমাণ বিজ্ঞানীরা পেয়েছেন এই ঘটনা থেকে, যে ঐ রোগাক্রান্ত ব্যক্তিটির শারিরীক সংস্পর্শে এসেছিল ৪৩ জন, কিন্তু ঐ মহিলা ছাড়া আর কেউ রোগাক্রান্ত হয়নি. এই মুহুর্তে চীনে বার্ড ফ্লু-য়ে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১৩২, যাদের মধ্যে ৪৩ জন মারা গেছে.