মিশরের “আল-আখ্রাম” পত্রিকার খবর অনুযায়ী, আন্দোলন ইচ্ছাকৃতভাবে শিশুদের ব্যবহার করতে চায় “জীবন্ত ঢাল” হিসেবে, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বাহিনীর দ্বারা মিছিল ছত্রভঙ্গ করার ক্ষেত্রে. রবিবার সন্ধ্যায় মিশরের পুলিশ কায়রোর একটি গরীব পাড়া শোবরা এল-হেইমে ইস্লামিক সমিতির দুজন কর্মীকে আটক করে. তারা ৭০ জনেরও বেশি শিশুর সাথে যাচ্ছিল রাবিয়া আল-আদাভিয়া স্কোয়ারের দিকে, যেখানে মুর্সির পক্ষসমর্থকদের বে-মেয়াদী আন্দোলন চলছে. তাদের নিয়ে যাওয়া হয় পুলিশ-থানায়. সেখানে শিশুরা বলে যে, তাদের বেশির ভাগই অনাথ, এবং তারা রাবিয়া আল-আদাভিয়া স্কোয়ারে যেতে সম্মত হয়েছিল কারণ তাদের প্রত্যেককে ১০০ মিশরী পাউন্ড ( প্রায় ১৫ মার্কিনী ডলার) করে দেওয়ার এবং স্কোয়ারে খাওয়ানোর প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল. পরে পুলিশ-থানায় আসে প্রায় ১০০ জন ইস্লামিক পক্ষসমর্থক এবং শিশুদের মুক্ত করার দাবি করে, এ কথা বলে যে তারা শিশুদের আত্মীয়. সেই সঙ্গে তারা ধর্মীয় ও সেনাবাহিনী বিরোধী স্লোগান তোলে. পুলিশ সিদ্ধান্ত নেয় শিশু-পরিচর্যা সংস্থার কাছে শিশুদের পাঠানোর, ভবিষ্যতে সবকিছু স্পষ্ট করে নেওয়ার জন্য.