ভারতের বিমানবাহিনীকে প্রথম “সু-৩০এম.কা.ই” মার্কা ফাইটার বিমান হস্তান্তর করার আশা করে, যা সুপারসোনিক ব্রামোস ক্রুইজ মিসাইল বহনে সক্ষম. এ সম্বন্ধে “ইতার-তাস” সংবাদ এজেন্সিকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে বলেছেন কোম্পানির প্রেসিডেন্ট শ্রী এস.পিল্লাই. কথা হচ্ছে “সু-৩০এম.কা.ই” মার্কা দুটি ফাইটার বিমানের, যার আধুনিকীকরণ শিগগিরই শেষ হবে নাসিক শহরে হিন্দুস্তান এয়ারোনটিক্স লিমিটেড কর্পোরেশনের কারখানায়. “ব্রামোস” রকেটের ম্যাকেট ইতিমধ্যে তৈরি করা হয়েছে এবং ভারতে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে. এ বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত ফাইটার বিমানগুলির একসারি উড়ান-পরীক্ষা চালানো হবে. বিমানে বসানোর ধরণের “ব্রামোস” রকেটের প্রথম ক্ষেপণ নির্ধারণ করা হয়েছে ২০১৪ সালের জুন মাসে. আশা করা হচ্ছে যে, “ব্রামোস” রকেটে সজ্জিত ফাইটার বিমান প্রস্তুত হবে ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে. “ব্রামোস এয়ারোস্পেস” কোম্পানি গঠিত হয়েছিল ১৯৯৮ সালে. এই “ব্রামোস” রকেট ২৯০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত লক্ষ্য আক্রমণ করতে সক্ষম. তা ইতিমধ্যে ভারতের স্থল বাহিনীতে মোতায়েন রয়েছে, দেশের নৌবাহিনীর জাহাজগুলিকেও এ রকেটে সজ্জিত করা হয়েছে.