আফগানিস্তানের পার্লামেন্ট সদস্যরা বর্তমানের স্বারাষ্ট্র মন্ত্রীকে নিয়ে অসন্তুষ্ট, কারণ তিনি খবর রাখেন আমেরিকার সঙ্গে রাষ্ট্রপতির দেশের ভবিষ্যত নিয়ে মতের অমিলের সময়ে আমেরিকার নীতি চাপিয়ে দওয়ার জন্য কোন পার্লামেন্ট সদস্য কিভাবে কাজ করছেন. কারজাই তাই পার্লামেন্ট সদস্যদের এই সিদ্ধান্তকে মেনে না নিয়ে দেশের সুপ্রীম কোর্টে এর ভিত্তি বিচারের জন্য পাঠিয়েছেন. পার্লামেন্টের সদস্যরা বলেছেন যে, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর কোন কাজের ক্ষমতা নেই ও নিজেই দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত. সারা ন্যাটো জোটের কাছ তেকে অর্থ সাহায্য, যা গত দশক ধরে আফগানিস্তানে যে সমস্ত লোক মিলে ভাগাভাগি করে নিচ্ছে, তাদের মধ্যে সম্ভাব্য অর্থ প্রবাহ ফুরিয়ে যাওয়া শুরু হওয়ার আগে প্রভাবের জায়গা দখলের লড়াই শুরু হয়েছে. স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী মুজতাবি পাতাঙ্গ তাই বর্তমানে অপ্রিয় হয়েছেন ও পার্লামেন্টে অনাস্থা প্রস্তাব পাশ হয়ে না যাওয়ার উপযুক্ত ১৩৬টি ভোটের জায়গায় পেয়েছেন ৬০টি ভোট.

তিনি আগে ছিলেন এই দেশের উপ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী ও গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসে তাঁর আগের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীকে পার্লামেন্ট একই ভাবে বরখাস্ত করার পরে এই জায়গা পেয়েছিলেন.