×
South Asian Languages:
সংস্কৃতি ডিসেম্বর 2010
ভারত শিল্প কলার প্রতি আগ্রহ জাগায়. এ সম্বন্ধে অনেক শিল্পীই বলেছেন, সঙ্গীতকার, অভিনেতা সকলেই. রাশিয়ার জাতীয় শিল্পী ও মস্কোর রোয়েরিখ নামাঙ্কিত শিল্প ক্লাবের প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির আনিসিমভ এখন প্রচুর রঙ ও ছবি আঁকার কাগজ কিনছেন. জানুয়ারী মাসে তিনি তাঁর বন্ধুদের সঙ্গে ভারতে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছেন. এই দেশে তাঁর কত বারের এটা সফর হতে চলেছে, তা বলা দুষ্কর.
বাগদাদের ললিতকলা ইনস্টিটিউটকে ২০১১ সাল থেকে সঙ্গীত ও নাট্যকলার কোর্সে শিক্ষাদান নিষেধ করা হয়েছে. তত্সংক্রান্ত সরকারী পরোয়ানা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নেতৃবৃন্দ পেয়েছেন ইরাকের শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে. উচ্চশিক্ষালয়ের বিভাগীয় উপ-প্রধান ফালাহ আল-মুসাদি বলেন, ইরাকী কর্তৃপক্ষের এই নির্দেশনামা ইনস্টিটিউটের জন্য মৃত্যুস্বরূপ. তিনি উল্লেখ করেন যে, এ সিদ্ধান্ত গ্রহণে প্রভাব বিস্তার করেছে ধর্মীয় পার্টিগুলি, যাদের লক্ষ্য হল এ দেশকে মধ্যযুগে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া.
রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ ভারতের “বলিউডের” বৃহত্তম চলচ্চিত্র-স্টুডিও পরিদর্শন করেছেন. তিনি রাশিয়া ও ভারতের চলচ্চিত্র-নির্মাতাদের সাথে চলচ্চিত্রের ক্ষেত্রে দু দেশের সহযোগিতার সম্ভাবনা আলোচনা করেন, স্টুডিওতে শুটিং দেখেন এবং একজন বিখ্যাত অভিনেতার সাথে আলাপ করেন. মেদভেদেভকে দেখানো হয় শেষ একটি মিলিত প্রকল্প- বহু সিরিজের “ইন্দুস”("হিন্দু") নামে চলচ্চিত্র, যা তোলা হয়েছে দু দেশের অভিনেতা ও কোম্পানির অংশগ্রহণে.
বিশ্বের বহু দেশেই বেশ কয়েক শ বহু দূর প্রসারিত অনুষ্ঠান – এই ছিল বিদায়ী বছরে "রুশ পৃথিবী" তহবিলের কাজের ফল. রাশিয়ার এই সামাজিক সংস্থা, বিদেশে রুশ ভাষা ও সংস্কৃতির প্রসারের জন্য তৈরী করা হয়েছে. সংস্থার উদ্ভব হওয়ার পরে গত তিন বছরে প্রচুর আন্তর্জাতিক স্বীকৃতিও মিলেছে.
রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ আজ ভারতে রওনা হচ্ছেন. দু দিনে তিনি সফর করবেন নয়া-দিল্লি, আগ্রা ও মুম্বাই, যেখানে তিনি একসারি কারবারী আলাপ-আলোচনাই চালাবেন না, বিশ্ববিখ্যাত তাজমহল দেখবেন এবং চলচ্চিত্র নির্মাণ ক্ষেত্র "বলিউড" পরিদর্শন করবেন. এটি মেদভেদেভের ভারতে দ্বিতীয় সরকারী সফর, আগে তিনি ভারত সফর করেন ২০০৮ সালের ডিসেম্বরে. মস্কো ও নয়া-দিল্লির মাঝে প্রতি বছর সফর বিনিময়ের পরম্পরা গড়ে উঠেছে.
মস্কো ক্রমলিনের ক্যাথিড্রাল স্কোয়ারে বসানোর জন্য নববর্ষের ফারগাছ কাটা হয়েছে মস্কো উপকণ্ঠের বনাঞ্চলে. শত শত ফারগাছের মধ্যে বেছে নেওয়া এই একশো বছর বয়সী গাছটির উচ্চতা- ৩০.৫ মিটার. ফারগাছটি ঘিরে বৈচিত্র্যময় নাট্যানুষ্ঠান হয় নাচ-গান সহ. এ বছরে এই প্রথম নববর্ষের ফারগাছকে পবিত্র করেন অর্থোডক্স খৃস্টান পাদ্রী. অনুষ্ঠানে তুষারদাদু ও তুষারকনাও অংশগ্রহণ করেছে, আর খরগোশ- প্রাচ্য ক্যালেন্ডার অনুযায়ী, আগামী বছরের প্রতীক.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
ডিসেম্বর 2010
ঘটনার সূচী
ডিসেম্বর 2010
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
14
16
17
18
19
21
22
24
25
26
27
28
30