×
South Asian Languages:
আমাদের সহযোগিতা, নভেম্বর 2013

মস্কোস্থিত ভারতীয় সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে স্বামী বিবেকানন্দের স্মৃতিমূর্তির উপস্থাপনা করা হল. ভাস্কর গ্রিগোরি পতোত্স্কি তার সৃজন তুলেদিলেন ভারতীয় পক্ষের হাতে. আমরা গ্রিগোরি পতোত্স্কির কাছে জিজ্ঞাসা করলাম, যে কিভাবে ও কোন উপলক্ষ্যে এই স্মৃতিমূর্তি সৃষ্টি করার ধারণা মাথায় এলো ? 

ভারতের কুদানকুলাম পারমাণবিক বিদ্যুতকেন্দ্রের চেয়ে অল্প দূরের এক গ্রাম ইদিনথাকারাই, সেখানে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বোমা বিস্ফোরণের ফলে ছ’জন নিহত হয়েছে, তার মধ্যে তিনটি শিশুও ছিল. কিন্তু এই বিস্ফোরণের প্রতিধ্বনি তামিলনাডু রাজ্যের বাইরে বহু দূরেও শুনতে পাওয়া গিয়েছে. আবারও আলোচ্যের তালিকায় উঠে এসেছে খুবই জটিল সমস্ত বিষয়, যা এই কুদানকুলাম পারমাণবিক বিদ্যুতকেন্দ্রের নিরাপত্তা নিয়ে শুরু হয়েছে, আর তারই সঙ্গে যোগ হয়েছে ভারতের পারমাণবিক শক্তি প্রকল্পগুলোর ভবিষ্যত নিয়ে চিন্তা আর অংশতঃ রুশ-ভারত পারমাণবিক সহযোগিতা নিয়েও. দেখাই যাচ্ছে যে, কেউ একজনের খুব একটা ইচ্ছা হয়েছে বহু বছর ধরে গড়ে ওঠা রুশ-ভারত মৈত্রী বন্ধনকে এই ক্ষেত্রে একেবারে বোমা মেরে ধ্বংস করে দেওয়ার.

বিমানবাহী জাহাজ “অ্যাডমিরাল গর্শকভ” আধুনিকীকরণ ও হস্তান্তর করা নিয়ে ইতিহাস, যা বর্তমানে পরিবর্তিত হয়ে “বিক্রমাদিত্য” নাম হয়েছে, তা আমাদের বাধ্য করেছে রুশ প্রবাদ মনে করতে: “(পথনির্দেশ, মানচিত্র) কাগজ কলমে তো সবই মসৃণ ছিল, শুধু ভুলে গিয়েছিল খাদের কথা”. বাস্তবে যখন ২০০৪ সালে দুই পক্ষ “অ্যাডমিরাল গর্শকভ” নিয়ে চুক্তি স্বাক্ষর করেছিল. তখন বোধহয়, যেমন মস্কো শহরে, তেমনই দিল্লীতেও কেউই মনে করতে পারেন নি যে, এই আধুনিকীকরণের কাজের জন্য সময় লাগতে পারে দশ বছর. আর শুধু চুক্তির মেয়াদ লঙ্ঘণ ছাড়াও দুই দেশের সম্পর্কও এক দীর্ঘ সময়ের জন্য মলিন হয়েছিল অর্থ যোগানের অভাবে, চুক্তির মূল্য বৃদ্ধির কারণে আর বাড়তি পরিকল্পনার বাইরের কাজের জন্য.

তেহরানের পরমাণু প্রকল্প নিয়ে একটি সমঝোতায় পৌঁছেছে ছয়জাতি ও ইরান। ২৪ নভেম্বর রোববার প্রথম প্রহরে জেনেভায় এই ঐতিহাসিক ঘটনা ঘটে। বৈঠকে অংশ নেয়া পক্ষগুলো একটি কৌশলগত সিদ্ধান্তে উপনীত হয়।আর চূড়ান্ত চুক্তিপত্র সই হবে অন্তত ছয়মাস পরে। শান্তিপূর্ণ কাজের জন্য তেহরানকে পরমাণু প্রকল্পের অনুমতি দেয়া হয়। তবে ইরানকে ছয়মাস নিজেদের পরমাণু প্রকল্পের কাজ পুরোপুরি স্থগিত রাখতে হবে।

শুরু করছি রুশী কথ্য ভাষায় আমাদের পরবর্তী পাঠ.

প্রিয় বন্ধুরা, আমাদের রুশী ভাষা শিক্ষার সপ্তদশ ক্লাসে আমরা আপনাদের সাদর আমন্ত্রণ জানাচ্ছি.

ЗДРАВСТВУЙТЕ! ПРИВЕТ,ДРУЗЬЯ!

Здравствуйте!

ইরানের পরমাণু সমস্যার সমাধান হচ্ছে মস্কো এবং ওয়াশিংটনের মধ্যে সহযোগিতার আরও একটি ক্ষেত্রে, যেখানে দুই দেশে যৌথ সম্পর্ক বজায় রেখে সহযোগিতা করছে। মস্কোয় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত মাইকেল ম্যাকফল নিজের এক টুইট পোষ্টে আজ রোববার এ কথা লিখেছেন। ইরানের পারমাণবিক কর্মসূচি নিয়ে তেহরান ও অপর ছয়টি দেশ যে সমঝোতায় পৌঁছেছে তা নিয়ে এক মন্তব্য জানান ম্যাকফল।

সিরিয়ার সরকারবিরোধী জোট সিরিয়ান ন্যাশনাল কোয়ালিশনের (এসএনসি) প্রেসিডেন্ট আহমেদ আল-জারাবা ডিসেম্বরে রাশিয়ার মস্কো সফরে আসতে পারেন। শনিবার বার্তাসংস্থা ইতার-তাসকে দেয়া সাক্ষাতকারে এ কথা জানিয়েছেন এসএনসি’র ভাইস প্রেসিডেন্ট সুহেইর আল আত্তাসি।

ইরানের পারমাণবিক কর্মসূচি নিয়ে জেনেভায় তেহরানের সঙ্গে ছয় বিশ্বশক্তির আলোচনা আজ রোববার একটি সমঝোতায় পৌঁছেছে।

যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, চীন রাশিয়া ও জার্মানির পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) পররাষ্ট্র প্রধান ক্যাথেরিন এশটন চুক্তি সইয়ের সময়ে উপস্থিত ছিলেন। ইরানের পক্ষে আলোচনায় প্রতিনিধিত্ব করেছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ।

২২শে নভেম্বর রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে মিলিত হয়েছেন। দুই রাষ্ট্রের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতার বিভিন্ন দিক নিয়ে উভয় পক্ষ আলোচনা করে। এছাড়া সিরিয়াসহ আন্তর্জাতিক ইস্যু নিয়েও কথা হয় তাদের মধ্যে।

ইন্টারনেট ক্ষেত্রের উপরে নিয়ন্ত্রণ, উচ্চ গুণমান সম্পন্ন ডিজিট্যাল টেলিভিশন. মূল্যের বিনিময়ে বৈদ্যুতিন সংবাদ মাধ্যম, প্ল্যানশেট কম্পিউটারে টেলিভিশনের সিরিয়াল – একই রকমই হতে চলেছে নতুন মিডিয়া বাস্তব. এই রকমের একটা সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন জাতীয় টেলিভিশন ও রেডিও সম্প্রচারের সপ্তদশ সম্মেলনে রাশিয়ার নেতৃস্থানীয় সংবাদ মাধ্যমগুলির প্রধানরা.

সিরিয়ার রাসায়নিক অস্ত্র ভূমিতে নষ্ট করা নিয়ে সহমতে আসা সম্ভব হচ্ছে না. রাসায়নিক অস্ত্র নিষিদ্ধকরণ সংস্থার বিশেষজ্ঞরা এবারে তা সমুদ্রে নষ্ট করার সম্ভাবনা খতিয়ে দেখছেন. নিরপেক্ষ জলসীমা কতখানি বিষাক্ত দ্রব্য নষ্ট করার জন্য উপযুক্ত জায়গা, তা নিয়ে আলোচনা করেছেন “রেডিও রাশিয়ার” বিশেষজ্ঞরা.

রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন আজ ক্রেমলিনে ইজরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বিনিয়ামিন নিতানিয়াহুকে স্বাগত জানাবেন. নিতানিয়াহু সংক্ষিপ্ত সরকারি সফরে মস্কোয় আসছেন.

অধিকাংশ রুশবাসী তাদের জীবন নিয়ে সুখী ও সন্তুষ্ট. ‘রাশিয়া বিস্মিত করছেঃ সংখ্যাতথ্য ও সমাজতত্ত্ব বনাম মস্তিষ্কপ্রসূত গল্পগাছা ও কল্পনা করে নেওয়া সিদ্ধান্তাবলী’ নামক প্রকল্পের সংকলক সমাজতত্ত্ববিদেরা এই সিদ্ধান্তেই উপনীত হয়েছেন. জনসমীক্ষাটি এই সাক্ষ্য দিচ্ছে, যে রাশিয়ায় বসবাস করা বেশি ‘সুখকর’ হয়েছে. সমীক্ষাটির ফলাফল সংকলকরা www.russia-review.ru তে প্রকাশ করেছেন এবং এই বিষয়ে বই প্রকাশ করতে মনস্থ করেছেন.

বিদায়ী সপ্তাহে আন্তর্জাতিক রাজনৈতিক অঙ্গনে মস্কোর যথেষ্ট সক্রিয়তা আমরা দেখতে পেয়েছি। বিদেশে রাশিয়ার রাষ্ট্রপ্রধানের সরকারি সফরের ফলাফলই মূলত জানিয়ে দিচ্ছে যে সামরিক-প্রযুক্তি খাতে সহযোগিতার সেই পূর্বের স্বরুপে ফিরে আসছে রাশিয়া।

রাশিয়া ও ভারতের সামরিক প্রযুক্তি কমিশনের বৈঠক কাল মস্কোতে শুরু হচ্ছে। রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয় এ খবর জানিয়েছে। রাশিয়া ও ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী সেরগেই সাইগু ও এ কে অ্যান্টনি বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন।

রাশিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের একটি বিমান ৪০ টন ত্রাণসামগ্রী নিয়ে সিরিয়ার লাতাকিয়া শহরে পৌঁছেছে। রোববার রুশ গণমাধ্যম এ খবর জানিয়েছে।

রাশিয়া ভারতকে বিমানবাহী জাহাজ “বিক্রমাদিত্য” হস্তান্তর করেছে, এই কারণে সমারোহ হয়েছে সিয়েভেরোদ্ভিনস্ক শহরের “সেভমাশ” কারখানায়, যেখানে এই জাহাজকে আধুনিকীকরণ করা সম্পন্ন হয়েছে. ৩০শে নভেম্বর বিক্রমাদিত্য রাশিয়ার জলসীমা ছাড়িয়ে মুম্বাই শহরের দিকে রওয়ানা হবে.

সামরিক প্রযুক্তি সহযোগিতার ক্ষেত্রে ভারত রাশিয়ার জন্য প্রথম সহকর্মী দেশ হয়েই রয়েছে, যদিও বিগত সময়ে রাশিয়ার কোম্পানীগুলি একসারি সামরিক টেন্ডারে জয়লাভ করতে ভারতে অসমর্থ হয়েছে. এই বিষয়ে শুক্রবারে “ইন্টারফ্যাক্স” সংবাদ সংস্থাকে একটি রাশিয়ার দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে, যারা সামরিক রপ্তানীর বিষয়ে কাজ করে. প্রতিনিধির কথামতো, আসন্ন সময়ে পরিকল্পনা রয়েছে ভারতের সঙ্গে একসারি নতুন চুক্তি স্বাক্ষর করার.

তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী রেজেপ তাইইপ এর্দোগান ২১শে নভেম্বর রাশিয়ায় আসবেন দু দিনের সরকারী সফরে, শুক্রবার জানিয়েছে তুরস্কের প্রচার মাধ্যম. 

ইরানের উপরাষ্ট্রপতি পারমাণবিক শক্তি সংস্থার প্রধান আলি আকবর সালেখি ১৩ই নভেম্বর ইরানের প্রেস টিভি টেলিভিশনে ঘোষণা করেছেন যে, মস্কো ও তেহরানের মধ্যে স্বাক্ষরিত প্রোটোকল অনুযায়ী ২০১৪ সালের প্রথমার্ধে ইরানের নতুন পারমাণবিক বিদ্যুত প্রকল্পের কাজ রাশিয়ার সহযোগিতায় শুরু হয়ে যাবে.

আগের
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30
নভেম্বর 2013
ঘটনার সূচী
নভেম্বর 2013
3
5
6
7
11
12
18
21
26
27
29