×
South Asian Languages:
আমেরিকা, নভেম্বর 2013

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আগামী ছয়মাসের জন্য ইরানি তেলের ওপর নিষেধাজ্ঞা শিথিল করতে যাচ্ছে। গত কয়েকদিন ধরে ইরানের পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে যে আলোচনা হচ্ছে তারই অবশ্য আনুষ্ঠানিক এক ঘোষণা দিয়েছে হোয়াইট হাউস। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি এক বিবৃতিতে ওই ঘোষণা দিয়েছেন।

দামাস্কাসে রাশিয়ার দূতাবাসে গোলাবর্ষণ – এটা সন্ত্রাসবাদ, ঘোষণা করা হয়েছে রাষ্ট্রসঙ্ঘে. রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য দেশগুলি মনে করিয়ে দিয়েছে কূটনৈতিক মিশনের অস্পৃষ্টতার বিষয়ে ও সমস্ত দোষীদের বিচারের আহ্বান করেছে. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের পক্ষ থেকে করা সরকারি ঘোষণাতেও বলা হয়েছে যে “কোন রকমের আন্তর্জাতিক আইন সঙ্গত ব্যক্তি ও জায়গার উপরে আক্রমণ অপরাধ” ও তার সমালোচনা করা হয়েছে.

যখন হোয়াইট হাউসের থেকে পাঠানো দূতেরা ও আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপতি খুবই কড়া ভাষায় একে অপরের সঙ্গে আফগানিস্তানের প্রতিরক্ষা নিয়ে চুক্তির বিষয়ে সময় ও শর্ত নিয়ে আলোচনায় মত্ত, তখনই বিশেষজ্ঞরা অনুমান করতে বসেছেন যে, কি করে এই দরাদরি আফগানিস্তানের অন্যান্য জীবন যাপনের ক্ষেত্রে প্রভাব ফেলবে.

কাবুলে কিছু বিশেষজ্ঞ ইতিমধ্যেই ঘোষণা করেছেন যে, আফগানিস্তানের লোকদের এই চুক্তির একেবারেই কোন দরকার নেই, কারণ দেখাই যাচ্ছে যে, আমেরিকার লোকরা আফগানিস্তানকে কিছুই দেয় নি, শুধুমাত্র সেই দেশে মাদক দ্রব্য উত্পাদনের বিষয়ে তুমুল পরিমাণে অগ্রগতি ছাড়া. আরও একদল মনে করেছেন যে, এই চুক্তির আবার কিছু ইতিবাচক দিকও রয়েছে, যা ব্যবহার করা দরকার.

সিরিয়াতে বিরোধের সময়ে এগারো হাজারের বেশী শিশুর অকাল মৃত্যু হয়েছে. এই ধরনের তথ্য প্রকাশ করেছে বেসরকারি সংস্থা অক্সফোর্ড রিসার্চ গ্রুপ. বেশীর ভাগ শিশুর মৃত্যু হয়েছে গোলা ও বোমা বিস্ফোরণে. প্রায় হাজার খানের বাচ্চাকে গুলি করে মেরেছে স্নাইপার জঙ্গীরা, আর প্রায় একশ জন অল্প বয়সী অত্যাচার সহ্য করে উঠতে পারে নি. আপাততঃ সিরিয়াতে চলছে এক সশস্ত্র যুদ্ধ, সেখানে বাচ্চাদের ও নিরীহ মানুষদের নিহত হওয়া থেকে রক্ষা করা সম্ভব হয়ে উঠছে না.

রবিবারে ইরান ও “ছয় মধ্যস্থতাকারী পক্ষের” মধ্যে সমঝোতা, যা অর্জন করা হয়েছে, তা শুধু ইরানকেই স্পর্শ করে নি. এর বিশাল এক অর্থ রয়েছে ভারতের জন্যেও, যে দেশ ইরানের উপরে নিষেধাজ্ঞা থেকে নিজেদের জন্য দুর্দশার যথেষ্ট কারণ দেখতে পেয়েছে. ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম যেমন উল্লেখ করেছে যে, এই সমঝোতা ইরানের সঙ্গে জ্বালানী শক্তি ক্ষেত্রে আবার করে সহযোগিতার পথকে অনেক বেশী প্রশস্ত করে দিয়েছে. কিন্তু যেমন মনে করা হয়েছে যে, শুধু জ্বালানী শক্তি ক্ষেত্রেই সহযোগিতা আবদ্ধ হয়ে থাকবে না, আর সমগ্র পূর্ব ইউরো-এশিয়া এলাকার জন্যেই এই ভবিষ্যত সম্ভাবনা অনেক বেশী রকম ভাবেই প্রসারিত হয়েছে. এই প্রসঙ্গে রাশিয়ার স্ট্র্যাটেজিক গবেষণা ইনস্টিটিউটের বিশেষজ্ঞ বরিস ভলখোনস্কি মন্তব্য করে বলেছেন:

আফগানিস্তানের পার্লামেন্ট জির্গা অধিবেশনে অংশ নেওয়া সদস্যরা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সামরিক চুক্তি স্বাক্ষর করার স্বপক্ষে মত দিয়েছেন ও তাঁরা আহ্বান করেছেন রাষ্ট্রপতি হামিদ কারজাইকে ২০১৩ সাল শেষ হওয়ার আগেই এই চুক্তিতে স্বাক্ষর করার জন্য. কারজাই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জন্য নিজের পক্ষ থেকে শর্ত দিয়েছেন. তার মধ্যে রয়েছে ২০১৪ সালের এপ্রিল মাসে দেশে উন্মুক্ত নির্বাচন বাস্তবায়নে সহায়তা করা ও আফগানিস্তানের ঘর বাড়ীতে হানা দেওয়া বন্ধ রেখে, তালিবদের সঙ্গে আলোচনায় অগ্রগতি করা.

সিরিয়ার রাসায়নিক অস্ত্র ভূমিতে নষ্ট করা নিয়ে সহমতে আসা সম্ভব হচ্ছে না. রাসায়নিক অস্ত্র নিষিদ্ধকরণ সংস্থার বিশেষজ্ঞরা এবারে তা সমুদ্রে নষ্ট করার সম্ভাবনা খতিয়ে দেখছেন. নিরপেক্ষ জলসীমা কতখানি বিষাক্ত দ্রব্য নষ্ট করার জন্য উপযুক্ত জায়গা, তা নিয়ে আলোচনা করেছেন “রেডিও রাশিয়ার” বিশেষজ্ঞরা.

কাবুলে অনুষ্ঠ্যেয় আফগানিস্তানের আইনসভা লয়া জিরগার অধিবেশনের প্রস্তুতি শেষের পথে। এবারের বৈঠকের মূল আলোচ্য সূচী হচ্ছে ২০১৪ সালের পর মার্কিন বাহিনীর আফগানিস্তানে অবস্থান নিয়ে দেশটির প্রশাসনের সাথে চুড়ান্ত চুক্তি সই করা।

১৯৮৮ সালের ১৫ই নভেম্বর, আজ থেকে পঁচিশ বছর আগে খুবই উল্লেখযোগ্য এক ঘটনা বিশ্বের মহাকাশ বিজ্ঞানের ইতিহাসে ঘটেছিল – বৈকনুর মহাকাশ উড়ান কেন্দ্র থেকে যাত্রা শুরু করেছিল সোভিয়েত দেশে তৈরী বহুবার মহাকাশে যেতে সক্ষম রকেট “এনেরগিয়া-বুরান”. এক দৈত্যাকার মহাকাশে যাওয়ার উপযুক্ত বিমান, “স্পেস- শাটল্”, যেটা মহাকাশে উড়ে গিয়ে আবার পৃথিবীতে এসে নেমেছিল একেবারেই স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থার মাধ্যমে, যেটা তার পরেই “গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে” উল্লেখ করা হয়েছিল.

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি জন কেনেডির ২২শে নভেম্বর ১৯৬৩ সালে টেক্সাস শহরে হত্যার সঙ্গে লি হার্ভি অসওয়াল্ডের কোন রকমের সম্পর্কই ছিল না. এই বিষয়ে "রেডিও রাশিয়াকে" দেওয়া এক অনন্য সাক্ষাত্কারে ঘোষণা করেছেন রাষ্ট্রপতি কেনেডি হত্যা নিয়ে টেক্সাসের তদন্ত কমিশনের প্রাক্তন সদস্য উকিল জ্যাক ডাফ্ফি. নিজের নতুন বই ২০৬৩ সালের ব্যক্তিটি (The Man from 2063) ডাফ্ফি প্রকাশ করার সময়ে সেই সময়ের ঘটনাগুলোর অংশগ্রহণকারীদের সাক্ষাত্কার ও নতুন সূত্রগুলো নিয়ে লিখেছেন ও তারই সঙ্গে পর্যালোচনা করেছেন যে, আমেরিকা যদি কেনেডি জীবিত থাকতেন, তবে এখন কি রকমের হতে পারত.

ভারতে নির্বাচনী প্রচারের জোরদার সময়ে আমেরিকার রাজনীতিবিদরা এবারে বিরোধী পক্ষ ভারতীয় জনতা দলের নেতা ও প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে যোগাযোগের রাস্তা খুঁজছে. তাঁকে নিমন্ত্রণ করা হয়েছিল “ক্যাপিটাল হিলসে ভারত দিবসে” আমেরিকার কংগ্রেস সদস্যদের সামনে বক্তৃতা দিতে. তবে এটাও ঠিক যে, ব্যক্তিগত ভাবে নয়, স্রেফ ভিডিও যোগাযোগের মাধ্যমে.

বিশ্বের অর্থনীতি বর্তমানে বৈদ্যুতিন বিদেশী মুদ্রা সংক্রান্ত নতুন এক লড়াইয়ের অধ্যায়ের সামনে পড়েছে. এই ধরনের সিদ্ধান্ত করেছেন বিশ্বের রিজার্ভ ব্যাঙ্কগুলোর থেকে শেষ খবর পাওয়ার পরে বিশ্লেষকরা. দেশগুলো কৃত্রিম ভাবে নিজেদের জাতীয় মুদ্রার বিনিময় মূল্য কমাতে শুরু করেছে, যাতে অর্থনৈতিক উন্নতিতে গতিবেগ দেওয়া যেতে পারে.

পাকিস্তানে পরিস্থিতি আবারও টালমাটাল. নভেম্বর মাসের শুরুতে আমেরিকার ড্রোন বিমানের আঘাতে নিহত হয়েছে পাকিস্তানের তেহরিক-এ-তালিবান পাকিস্তান দলের নেতা হাকিমুল্লা মেহসুদ. আবার এবারে নতুন করে নিহত হল সশস্ত্র বিরোধী দলের এক প্রখ্যাত (কুখ্যাত) নেতা. রবিবারে মারা গিয়েছে নাসিরুদ্দীন হাক্কানি, যাকে মনে করা হত হাক্কানি সন্ত্রাসবাদী দলের মুখ্য অর্থের জোগানদার ও গোষ্ঠীর স্রষ্টা জালালুদ্দীন হাক্কানির এক পুত্র. এই সবই চলছে একটা অনির্দিষ্ট অবস্থার মদ্যে, তা যেমন পাকিস্তানের প্রশাসনের প্রতি, তেমনই সশস্ত্র জঙ্গীদের প্রতি আর একই সঙ্গে পাকিস্তান ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যেও. দেখাই যাচ্ছে যে, কারও একটা প্রয়োজন পড়েছে এই পরিস্থিতিকে এমন একটা জায়গায় পৌঁছে দিতে, যখন দেশের কেন্দ্রীয় সরকার দেশের ঘটনা নিয়ন্ত্রণে অপারগ হবে, এই রকম মনে করেছেন রাশিয়ার স্ট্র্যাটেজিক গবেষণা ইনস্টিটিউটের বিশেষজ্ঞ বরিস ভলখোনস্কি.

বৈদ্যুতিন গুপ্তচর বৃত্তির জন্য সারা বিশ্ব জোড়া স্ক্যান্ডালের পাত্র ও অনন্য ক্রীড়নক ওয়াশিংটন এবারে ঠিক করেছে রাষ্ট্রসঙ্ঘে গুপ্তচর বিরোধী সিদ্ধান্তের আলোচনাতে অংশ নেবে. এই খবর পররাষ্ট্র দপ্তর থেকে সমর্থন করা হয়েছে. এই দলিল, যা ইলেকট্রনিক উপায়ে নজরদারি করা শেষ করার জন্য আনা হচ্ছে, তা কয়েকদিন আগে রাষ্ট্রসঙ্ঘের কাছে প্রস্তাব করেছে ব্রাজিল ও জার্মানী. রাশিয়াতে মনে করা হয়েছে যে, এই সিদ্ধান্তকে কার্যকরী করা সম্ভব. রাষ্ট্রসঙ্ঘের দলিল কি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে সারা বিশ্বের উপরে গোয়েন্দাগিরি করার অভ্যাস থেকে নিরস্ত করতে পারবে?

আজ থেকে পাঁচ বছর আগে ২০০৮ সালে জর্জ ডাব্লিউ বুশ প্রেসিডেন্ট থাকাকালিন তার কেবিনেটে যোগ দিয়েছিলেন বারাক ওবামা। তবে প্রার্থী হিসেবে নয় বরং ভবিষ্যতের মার্কিন প্রেসিডেন্ট হওয়ার সংকল্প নিয়ে।

সিরিয়াতে শান্তিপূর্ণ নিয়ন্ত্রণের জন্য “জেনেভা-২” সম্মেলনের তারিখ আবারও পিছিয়ে দেওয়া হল. এবারের দেরী করা জড়িত সেই কারণের সঙ্গে যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বিরোধী পক্ষকে একজোট করতে সক্ষম হয় নি ও তাদের আলোচনায় প্রবৃত্ত করতে পারে নি. তার ওপরে আবার সিরিয়ার বিরোধী পক্ষ ও আমেরিকা নিজেই চাইছে না যে, ইরান “জেনেভা-২” সম্মেলনে যোগ দিক.

“জেনেভা-২” সম্মেলনের প্রস্তুতির পথে নতুন সমস্যা উদ্ভব হয়েছে. সিরিয়ার ছড়িয়ে থাকা বিরোধী পক্ষের নেতারা কোন ভাবেই একটা সর্বজন সম্মত অবস্থান নিতে পারছে না, যা এই সম্মেলনে অংশ নেওয়ার জন্য দরকার. আর ওয়াশিংটন থেকে ঘোষণা করা হয়েছে যে, তারা এদের উপরে প্রভাব ফেলতে অশক্ত – যদিও আশা করছে যে, বিরোধী পক্ষের লোকরা বুঝবে: রাজনৈতিক আলোচনার কোন বিকল্পই নেই.

কিন্তু মনে রাখতে হবে যে, বিরোধীরা তাও সঠিক সিদ্ধান্তই নেবে. হোয়াইট হাউস থেকে ইতিমধ্যেই স্পষ্ট করে বুঝতে দেওয়া হয়েছে যে, বাশার আসাদের প্রশাসনকে উল্টে দেওয়া নিয়ে তারা এবারে মত পাল্টে ফেলেছে. আর আমেরিকার সমর্থন ছাড়া তুরস্ক ও আরব রাজতন্ত্রগুলো সামরিক অনুপ্রবেশের পথে কোন দিনও যাবে না.

তেহরানে আমেরিকা বিরোধী গণ মিছিল হয়েছে আরও একবার সেই ঐস্লামিক বিপ্লবের পরে চরমপন্থী ইরানের যুবকদের হাতে আমেরিকার রাষ্ট্রদূতাবাস দখল করা নিয়ে ঘটনাকে স্মরণ করে. ৩৪ বছর আগে বন্দী করে রাখা হয়েছিল মার্কিন দূতাবাসের ৫২জন কর্মীকে, যাদের আটকে রাখা হয়েছিল ৪৪৪ দিন. এই কাজের ফলে ১৯৭৯ সালে ইরানের সঙ্গে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন হয়েছিল, যা আজও নতুন করে তৈরী হতে পারে নি.

অক্টোবর মাসে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের ওয়াশিংটন সফরের অব্যবহিত পরেই মার্কিন ড্রোন বিমানের আঘাত হানা হয়েছে পাকিস্তানে, যার পরিণতিতে মৃত্যু হয়েছে “তেহরিক-এ-তালিবান পাকিস্তান” দলের নেতা হাকিমুল্লা মেহসুদ ও তাঁর চার দলের লোকের. ওবামার সঙ্গে আলোচনার সময়ে নওয়াজ শরীফের একটি প্রধান আলোচ্য বিষয় ছিল ইসলামাবাদের জন্যই সবচেয়ে বেদনাদায়ক আচমকা পাইলট বিহীণ বিমান থেকে আঘাত, যা পাকিস্তানের প্রশাসনের কাছ থেকে কোন রকমের অনুমতির অপেক্ষা না রেখেই করা হয়েছে আফগানিস্তানের সঙ্গে সীমান্তের কাছের এলাকায় সন্ত্রাস বিরোধী অপারেশনের অংশ হিসাবে.

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি পদে পুনর্নির্বাচিত হওয়ার পরে ৬ই নভেম্বর বারাক ওবামার আরও একটি শাসনের বছর শেষ হতে চলেছে. এই সময় মার্কিন রাষ্ট্রপতির পক্ষে মোটেও মেঘমুক্ত ছিল না. একসারি বিফল হওয়া ও নিজের দেশের ভিতরে ও দেশের বাইরে নানা রাজনৈতিক স্ক্যান্ডালে জড়িয়ে পড়ে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী রাষ্ট্রের রাষ্ট্রপ্রধান তাঁর প্রভাব ও আন্তর্জাতিক ভাবে মর্যাদার অনেকটাই খুইয়েছেন.

আগের
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30
নভেম্বর 2013
ঘটনার সূচী
নভেম্বর 2013
3
4
8
9
11
16
17
18
19
21
23
24
25