১৯৯৩ সালে গৃহীত সংবিধান অনুযায়ী রাশিয়ার রাষ্ট্র সভা দেশের একটি প্রতিনিধিত্ব মূলক আইন প্রণয়নের প্রশাসনিক সংস্থা. কর্মসূচী ও দায়িত্ব রাষ্ট্র সভার উচ্চ ও নিম্ন কক্ষের মধ্যে ভাগ করে দেওয়া হয়েছে – রাষ্ট্রীয় লোকসভা ও জাতীয় সভা (উচ্চ কক্ষ). দেশের উচ্চ পর্যায়ের প্রশাসনিক বিষয়ে বহু ক্ষেত্রে সমাধান করতে এই সভা দুটি অংশ নিয়ে থাকে, দেশের বাজেট গ্রহণ করাও এদের কাজ. বেশ কয়েকটি রাষ্ট্রীয় ও প্রশাসনিক ব্যবস্থা সৃষ্টিতেও এই দুই সভা অংশ নিয়ে থাকে, কিছু ক্ষেত্রে পার্লামেন্টের তরফ থেকে নিয়ন্ত্রণের কাজও করা হয়ে থাকে.

    রুশ প্রজাতন্ত্রের ৮৩টি রাজ্য ও এলাকার প্রত্যেকটি থেকে ২জন করে প্রতিনিধি রাজ্য সভায় রয়েছেন, এঁরা স্থানীয় আইন প্রণয়ন ও প্রশাসনের দুই প্রধান. রাজ্য সবার সদস্যরা এই সভাতে স্থায়ী পেশাদার ভাবে কাজ করেন না, বছরের বিভিন্ন সময়ে মিলিত হন. বাকী সময়ে তাঁরা তাঁদের নিজেদের এলাকার কাজে ব্যস্ত থাকেন. দেশের লোকসভায় ৪৫০ জন সদস্য, যাদের দেশের জনগন সরাসরি নির্বাচিত করেন, তাদের মধ্যে ২২৫ জন সদস্য – রাষ্ট্রীয় স্বীকৃত দল গুলির তালিকা থেকে নির্বাচিত হন হিসাব অনুযায়ী নির্বাচনের মাধ্যমে ও বাকী ২২৫ জন সদস্য সরাসরি গন ভোটে সর্বাধিক ভোট যিনি পেয়েছেন, সেই হিসাবে নির্বাচিত হন. লোকসভার সমস্ত সদস্য তাঁদের পেশা হিসাবে এই কাজ করে থাকেন. তাঁরা লোকসভার সদস্য হিসাবে বেতন পেয়ে থাকেন, কোন অন্য সরকারি কাজে তাঁরা কাজ করতে পারেন না, অন্য কোন রকমের সবৈতনিক কর্ম তাঁরা করতে পারেন না, শুধুমাত্র শিক্ষা, বিজ্ঞান সংক্রান্ত বা শিল্পের কাজ করতে পারেন.