২১শে অক্টোবর দিন ২টা ৫ মিনিটে নিয়মিত যাত্রীবাহী বাসে বিস্ফোরণ ঘটে. শেষ প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, ৬ জন নিহত হয়েছে, ৩৭ জন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, তাদের মধ্যে ৮ জন এখন গুরুতর অবস্থায় হাসপাতালে প্রখর চিকিত্সার বিভাগে রয়েছে. ২২শে অক্টোবর থেকে ভোলগোগ্রাদে তিন দিনের শোক ঘোষণা করা বয়েছে. অকুস্থলে, রাস্তায় যানবাহনের চলাচল আংশিকভাবে সীমিত করা হয়েছে. বিস্ফোরণের জায়গায় কাজ করছে বিশেষজ্ঞ, অপরাধ-বিদ এবং তদন্তকারীরা.

   রাশিয়ার তদন্ত কমিটির তথ্য অনুযায়ী, আত্মঘাতী মহিলা কে, তা প্রাথমিকভাবে নির্ধারণ করা হয়েছে – সে দাগেস্তানের গুনিব গ্রামে জন্মগ্রহণ করা নাইদা আসিয়ালোভা. বিপর্যয়ের জায়গায় পাওয়া গেছে তার পরিচয়-পত্র - পাসপোর্ট এবং “মাখাচকালা-মস্কো” টিকিট. সন্ত্রাসবাদী মহিলার গ্রামবাসীরা নিশ্চয়োক্তি করেছে যে, দশ বছর আগে সে রোজগারের আশায় মস্কোয় চলে গিয়েছিল, তার পর থেকে তার সাথে সম্পর্ক ছিন্ন হয়ে যায়.

   তদন্তের ভার্সন অনুযায়ী, বিস্ফোরণ ব্যবস্থা তৈরি করে থাকতে পারে আত্মঘাতিনীর সহবাসী দমিত্রি সকোলোভ, যে মাখাচকালায় দুটি সন্ত্রাস ঘটিয়েছে, যার ফলে ৪০ জন নিহত হয়. কয়েক বছর আগে তরুণ সকোলোভ ইস্লাম গ্রহণ করে, নাম নেয় আব্দুল জাবর এবং দাগেস্তানে আত্মগোপনে থাকা গুণ্ডা দলে যোগ দেয়. এখন তার নামে ফেডারেল হুলিয়া জারি করা হয়েছে.