সন্ত্রাসবাদী “আল-কাইদা” নেটওয়ার্ক ইরাকে একসারি সন্ত্রাসের জন্য দায়িত্ব গ্রহণ করেছে, এ বছরের জুলাই মাসেই যার শিকার হয়েছে অন্ততপক্ষে ৯০০ জন. এ বছরের গোড়া থেকে “আল-কাইদা” এবং অন্যান্য চরমপন্থী দলের পক্ষসমর্থকরা ইরাকের ৪ হাজারেরও বেশি নাগরিককে হত্যা করেছে. ইরাকের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ উপলক্ষে এক বিবৃতি দিয়েছে, যাতে বলা হচ্ছে যে, দেশ সম্মুখীন হয়েছে “উন্মুক্ত যুদ্ধের, যার গতিতে রক্তলিপ্সূ চরমপন্থা ধর্মীয় দলগুলি দেশকে বিশৃঙ্খলার অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে চেষ্টা করছে”. মন্ত্রণালয় নাগরিকদের রাডিক্যালদের বিরুদ্ধে সংগ্রামে সহযোগিতার আহ্বান জানিয়েছে, এবং প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তার জন্য পুরস্কারের, আর জঙ্গীদের লুকিয়ে রাখার জন্য – শাস্তির.