রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদ শুক্রবার নিউ-ইয়র্কে সিরিয়ার বিরোধীপক্ষের প্রতিনিধিদলের সাথে প্রথম বেসরকারী সাক্ষাত্ আয়োজন করবে. এমন সাক্ষাত্ আয়োজনের উদ্যোগ আগে এ সপ্তাহে প্রকাশ করেছিল গ্রেট-বৃটেন. সাক্ষাতে নিরাপত্তা পরিষদের সদস্যরা মিলিত হবেন সিরিয়ার বিপ্লবী ও বিরোধী শক্তিগুলির জাতীয় কোয়ালিশনের প্রতিনিধিদের সাথে. তাঁরা সিরিয়া সঙ্ঘর্ষ সম্পর্কে প্রধান প্রধান প্রশ্ন আলোচনা করবেন, বলেছেন রাষ্ট্রসঙ্ঘে বৃটেনের স্থায়ী প্রতিনিধি মার্ক লায়েল গ্র্যান্ট. সিরিয়ার প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব করবেন সিরিয়ার বিপ্লবী ও বিরোধী শক্তিগুলির জাতীয় কোয়ালিশনের প্রধান আহমেত জারবা. তাছাড়া, প্রতিনিধিদলে অন্তর্ভুক্ত হবে বিরোধী শক্তির সামরিক অধিনায়কমন্ডলীর প্রতিনিধিরা. পক্ষদ্বয় আলোচনা করবেন হিংসা বন্ধ করা, দ্বিতীয় জেনেভা সম্মেলনের প্রস্তুতি, মানব অধিকার, উদ্বাস্তু, শান্তিপূর্ণ অধিবাসীদের রক্ষা, আর তাছাড়া সিরিয়ায় মানবতাবাদী সংস্থাগুলির প্রবেশ. নিউ-ইয়র্কে সিরিয়ার এই প্রতিনিধিদলের সাথে সাক্ষাতের ইচ্ছা আগে প্রকাশ করেছেন মার্কিনী পররাষ্ট্র সচিব জন কেরি. এদিকে, রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সম্পাদকের প্রতিনিধি মার্টিন নেসিরকি বলেছেন যে, সিরিয়া সম্পর্কে “জেনেভা-২” শান্তি সম্মেলন তাড়াতাড়ি আহূত হবে বলে আশা করা উচিত্ নয়. সিরিয়া সম্পর্কে আন্তর্জাতিক সম্মেলন আহ্বানের উদ্যোগ মে মাসের গোড়ায় প্রকাশ করেছিলেন রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররা্ষ্ট্র বিভাগের প্রধান সের্গেই লাভরোভ ও জন কেরি. সে সময় থেকে তা আয়োজনের সময় একাধিকবার বদল করা হয়েছে. কূটনীতিজ্ঞরা নিশ্চয়োক্তি করছেন যে, সম্মেলন আয়োজনে মুখ্য বাধা হল সিরিয়ার সরকারের সাথে আলাপ-আলোচনার জন্য একক প্রতিনিধিদল গঠনে সিরিয়ার বিরোধীপক্ষের অক্ষমতা.