সাতাশতম গ্রীষ্ম ছাত্র ক্রীড়া প্রতিযোগিতা শেষ হয়েছে, ইউনিভার্সিয়াড শেষের সমাপ্তি সমারোহ বুধবারে সন্ধ্যায় দেরী করে হয়েছে কাজান –অ্যারেনা নামের ষ্টেডিয়ামে.

এই উত্সবের চিত্রনাট্য একেবারে শেষ পর্যন্ত খুবই গোপনীয় করে রাখা হয়েছিল. কিন্তু শেষ অবধি সমাপ্তি সমারোহ যতটা আশা করা হয়েছিল, তার চেয়ে অনেক বেশী হাসি খুশী, রঙীণ আর জমকালোই হয়েছে. ঐতিহ্য অনুযায়ী অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন দেশের খেলোয়াড়দের প্যারেড ছাড়া ও আনুষ্ঠানিক ভাষণ ছাড়া, এই ইউনিভার্সিয়াডের সমাপ্তি অনুষ্ঠানে ছিল রাশিয়ার ও বিদেশী তারকাদের যৌবনের সঙ্গীত অনুষ্ঠান, যা সত্যিকারের একটা বড় জলসায় পরিণত হয়েছে. আর এমনকি প্রথম ভাষণ, যা রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদেভ দিয়েছেন, তাও ছিল যথেষ্ট রোমান্টিক, তিনি বলেছেন:

“সত্ প্রতিযোগিতা, দলগত চিন্তা, ভরসা, পারস্পরিক সহায়তা – এই নীতিগুলি শুধু খেলাধূলার সময়েই দরকার পড়ে না, জীবনেও দরকার পড়ে: মানুষের মধ্যে সম্পর্কের ক্ষেত্রে যেমন, তেমনই দেশ গুলির মধ্যেও. আমি আপনাদের সকলকে বলবো আত্মবিশ্বাস অর্জন করতে, খেলাকে ভালবাসতে, বন্ধুত্ব করতে. আশা করবো যে, আপনাদের মধ্যে প্রত্যেকেই এখানে এই কাজান শহরে অন্তত কিছুটা নিজের জন্য সাফল্য পেয়েছেন. কেউ জিতেছেন, কেউ মেডেল জয় করতে পেরেছেন. কেউ বা এক সুন্দর শহরের সঙ্গে পরিচিত হতে পেরে আনন্দ পেয়েছেন. আশা করবো যে, আপনারা সকলেই এখানে নতুন বন্ধু খুঁজে পেয়েছেন. আর হতে পারে কেউ হয়তো নিজের ভালবাসাকেও....”

সঙ্গীত – নৃত্যের এক পরিবেশনা উপস্থাপন করেছে আগামী ইউনিভার্সিয়াডের শহর - কোরিয়ার গুয়ানজ্যু. এই শহরের মেয়র ও ২০১৫ সালের ইউনিভার্সিয়াডের আয়োজক কমিটির প্রধান কা নুন তে নিজের ভাষণে উল্লেখ করেছেন যে, কাজান এক চমত্কার প্রতিযোগিতা আয়োজন করেছিল.

কাজানের মেয়র ইলসুর মেতশিন বলেছেন যে, কাজান – এই পৃথিবীর এক অনন্য জায়গা, যেখানে কোন রকমের বিরোধ ছাড়াই বন্ধুর মতো বহু বিভিন্ন সংস্কৃতির মানুষ একসাথে রয়েছেন, তিনি বলেছেন:

“২৭তম গ্রীষ্ম ইউনিভার্সিয়াডের আগুন আমাদের পৃথিবীর বহু কোটি মানুষকে এক করেছে ও উষ্ণ করেছে, আর খুবই প্রতীকী হয়েছে যে, এই ছাত্র ক্রীড়া প্রতিযোগিতার রাজধানী হয়েছে এই দিন গুলিতে সেই কাজান শহর – যে শহর বহু শতক ধরে শান্তি ও মৈত্রীর বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে বেঁচে রয়েছে, যেখানে ১১৬ টি বিভিন্ন উপজাতি ও প্রজাতির মানুষের বাস. এটা সেই শহর, যেখানে একটি জানলা থেকেই একসাথে কাছাকাছি দেখতে পাওয়া যেতে পারে মসজিদ, অর্থোডক্স গির্জা, ক্যাথলিক চার্চ ও ইহুদী সিনাগগ”.

আন্তর্জাতিক ছাত্র ক্রীড়া সংগঠনের প্রেসিডেন্ট ক্লদ-লুই গাল্লেন এই ক্রীড়ার সমাপ্তি ঘোষণা করেছিলেন, আর তারপরেই কাজান-অ্যারেনাতে ইউনিভার্সিয়াডের মশাল নিভে গিয়েছিল. উত্সব শেষ হয়েছে. আর এটা ছিল এক বিশাল উত্সব.