সিরিয়ার বিরোধীপক্ষকে অস্ত্র সরবরাহ না করা সম্পর্কে গ্রেট-বৃটেন সরকারের সিদ্ধান্ত তাদের জন্য বিপর্যয়কর. এ সম্বন্ধে মঙ্গলবার লিখেছে বৃটিশ পত্রিকা “ডেইলি টেলিগ্রাফ”, বিরোধী স্বাধীন সিরিয়ার বাহিনীর সদর দপ্তরের প্রধান সেলিম ইদ্রিস-এর উদ্ধৃতি দিয়ে.তিনি উল্লেখ করেন যে, সিরিয়ার বিরোধীপক্ষের অপেক্ষাকৃত নরমপন্থীদের অস্ত্র সরবরাহে পাশ্চাত্যের অস্বীকৃতি রাষ্ট্রপতি বাশার আসদের শাসনের বিরুদ্ধে সংগ্রামে উদ্যম হাতছাড়া হয়ে তা চলে যেতে পারে চরমপন্থী ইস্লামিকদের হাতে. ইদ্রিস বিরোধীপক্ষকে সাহায্য করার জন্য পাশ্চাত্যের প্রতিশ্রুতি-কে “ব্যঙ্গ” বলে অভিহিত করেন. আগে বৃটেনের প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন সিরিয়ার বিরোধীপক্ষকে অস্ত্র সরবরাহ করতে অস্বীকার করেন বৃটিশ সামরিক কর্মীদের পরামর্শে, উল্লেখ করেছে “ডেইলি টেলিগ্রাফ”. পত্রিকাটির তথ্য অনুযায়ী, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রও সিরিয়ার বিরোধীপক্ষকে অস্ত্র সরবরাহ মুলতুবি রাখে এ কারণে যে, এ অস্ত্র গিয়ে পড়তে পারে ইস্লামিকদের হাতে.