মিশর, যে দেশটি সপ্তাহের শুরুতেও ছিল গৃহযুদ্ধের প্রান্তে আর অর্থনীতির ধ্বংসের মুখে তা কিনা আচমকা অনেক বড় অংকের আর্থিক সাহায্য পেতে যাচ্ছে মিশরীয় বিপ্লব এবং ধর্মনিরপেক্ষতাকে রক্ষা করবে তেল সমৃদ্ধ ধনী আরব দেশগুলো রাজতন্ত্র শাসিত দেশ সৌদি আরব, কুয়েত, সংযুক্ত আরব-আমিরশাহি ও কাতার মিশরের মূদ্রা ব্যবস্থা ও অর্থনীতিতে বিপুল পরিমান অর্থ সরবরাহ করার ঘোষণা দিয়েছে

পারস্য উপসাগরীয় দেশগুলোর শুরু থেকেই মিশরের ক্ষমতাচ্যুত রাষ্ট্রপতি মোহাম্মদ মুরসি ও 'মুসলিম ব্রাদারহুডের' ওপর আস্থা ছিলো না তাই, তেল-মার্কিন ডলারের এ সাহায্যের অর্থ হচ্ছে মিশরে সামরিক অভ্যুত্থানকে পুরোপুরি সমর্থন করা মিশরীয় অর্থনীতি খুব শীঘ্রই ১২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার পেতে যাচ্ছে এর মধ্যে ৮ বিলিয়ন আসবে সৌদি আরবের কাছ থেকে সুদবিহীন ঋণের পুরো অর্থের একটি অংশ পাবে কায়রোতে অবস্থিত মিশরীয় কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক ও ২ বিলিয়ন ডলার তেল-গ্যাস সরবরাহে ব্যয় করা হবে এই অর্থ মিশরের ভাঙ্গা অর্থনীতি পুনরায় চাঙ্গা করতে সাহায্য করবে

এদিকে মিশরকে সাহায্য করতে রাশিয়ায়ও তৈরী আছে যদি এ ধরণের কোন প্রস্তাব আসে উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ক রুশ রাষ্ট্রপতির বিশেষ প্রতিনিধি মিখাইল বাগদানোভ ১২ জুলাই এক বিবৃতিতে এ কথা বলেছেন তার ভাষায়, 'এ সাহায্য সরকারি এবং বেসরকারি পর্যায়ে হতে পারে।'

মিশরের পাশ্ববর্তী আরব দেশগুলো স্বস্তির নিঃশাস ফেলেছে যখন দেশটির অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের রাষ্ট্রপতি আদলি মানসুর প্রধানমন্ত্রীর পদে সাবেক অর্থমন্ত্রী হাজেম এল বেবলাওয়িকে নিয়োগ করেছেন আর উপ-রাষ্ট্রপতির পদ পেয়েছেন আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থার সাবেক প্রধান মোহম্মদ এল বারাদি অর্থাত, পুরো মন্ত্রীপরিষদের সদস্যরা হচ্ছেন উদারপন্থী অর্থনীতিবিদ ও রাজনীতিবিদ এ থেকে পুনরায় প্রমানিত হলো যে, মিশর ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র গঠনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে যদিও আদলি মন্ত্রীপরিষদ গঠনের জন্য 'মুসলিম ব্রাদারহুডের' প্রতিনিধি চেয়ে আহবান জানিয়েছিলেন কিন্তু এতে তারা সাড়া দেয় নি

মুসলিম ব্রাদারহুড মিশরের নতুন রাষ্ট্রপতির ক্ষমতায়তনের বিরোধীতা করেছে এবং সংবিধান সংশোধন করার পরিকল্পনা প্রত্যাখান করেছে জানা যায়, আগামী ২ মাসের মধ্যে সংবিধান সংশোধন করা, ২০১৪ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে পার্লামেন্ট নির্বাচন আয়োজন করা এবং এরপরেই রাষ্ট্রপতি নির্বাচন ডাকা হবে কিন্তু, নতুন সরকারের বিরুদ্ধে গনআন্দোলন গড়ার হুমকি দিয়েছে ইসলামপন্থীরা তবে আপাতত রমজান মাস চলাকালে বড় ধরণের কোন ঘটনা না ঘটার সম্ভাবনাই বেশি তবে রমজান মাস শেষে হয়তো অনেক কিছুই ঘটতে পারে

মিশরীয় আল-মাসরি আল-ইয়াউম পত্রিকার সম্পাদক ইহাব আজ-জিলাকি বলেন, 'আমি মনে করি না যে, মিশরে পরিস্থিতি  সিরিয়া বা আলজেরিরার পুনরাবৃত্তি হবে যদিও মিশরীয়রা হিংসার বিরুদ্ধে সোচ্চার আছেন আমরা যা দেখতে পাচ্ছি তা অনেক দূরের ঘটনা, যার পিছনে রয়েছে উগ্রবাদীদের মদত্, যাদের সনাক্ত করার সুযোগ নেই পূর্ণ গৃহযুদ্ধের দিকে যাওয়ার সম্ভাবনা নেই।'

এদিকে মিশরের জাতীয় প্রগতিশীল পার্টির সভাপতি সাইদ আব্দ আল-আল "রেডিও রাশিয়া"কে দেওয়া সাক্ষাতকারে বলেছেন, ‘মুসলিম ব্রাদারহুড' নিজেদের কৃতকর্মের কারণেই এ অবস্থায় পৌঁছেছে আমি অপেক্ষা করছি যে, মিশরে মুসলিম ব্রাদারহুডের এই ব্যর্থতার একটা প্রভাব অন্যান্য আরব দেশগুলোতে যেন পরে সিরিয়া, ফিলিস্তিন, ইরাকসহ অন্যান্য দেশ যেখানে পশ্চিমীদের ছত্রছায়ায় শক্ত ঘাঁটি গেড়েছে মুসলিম কট্টরপন্থীরা।'

মিশরকে সমর্থন জানাতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এখন কোন দ্বিধা নেই সপ্তাহের শেষে যুক্তরাষ্ট্র এক ঘোষণায় কায়রোকে বিনা শর্তে ৪টি চতুর্থ প্রজন্মের যুদ্ধ বিমান দিতে প্রস্তুত রয়েছে সেই সাথে মিশরীয় সেনাবাহিনীকে সাহায্য প্রদান চালিয়ে যাবে ওয়াশিংটন প্রতিবছর এ খাতে যুক্তরাষ্ট্র ১ দশমিক ৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বরাদ্ধ করে থাকে