মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামা দক্ষিণ চীনা সাগরে এবং পূর্ব চীনা সাগরে ভূভাগীয় বিতর্ক মীমাংসায় বল প্রয়োগ ও তার ভীতি প্রদর্শনের বিরুদ্ধে চীনকে সতর্ক করে দিয়েছেন, জানিয়েছে হোয়াইট হাউজ. রাষ্ট্রপতি সাক্ষাত্ করেন চীনের প্রতিনিধিদলের সাথে, যারা স্ট্র্যাটেজিক ও অর্থনৈতিক প্রশ্নে দ্বিপাক্ষিক সংলাপে অংশগ্রহণ করেছেন. চীনের রাষ্ট্রীয় পরিষদের সদস্য পরে জানান যে, ওবামার সাথে সাক্ষাতে তিনি উক্ত প্রশ্নে চীনের “মূলনীতিগত স্থিতি ব্যাখ্যা করেন”. তাঁর কথায়, চীন “আশা করে যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সংলাপের মাধ্যমে বিতর্কমূলক সমস্যা ও তার মীমাংসার প্রতি যথাযথ মনোভাব প্রকাশের জন্য নির্দেশিত আগ্রহী পক্ষগুলির প্রচেষ্টা সমর্থন করবে”. তিনি আরও উল্লেখ করেন যে, “চীন বিশ্ব মহাসাগরে নৌ-যাত্রার স্বাধীনতার একান্ত পক্ষসমর্থক এবং এ নীতি দৃঢভাবে অনুসরণ করে যাবে”. সম্প্রতিকালে যথেষ্ট তীব্র হয়ে উঠেছে চীন ও জাপানের মাঝে, এবং চীন ও ফিলিপাইনের মাঝে সম্পর্ক. পূর্ব চীনা সাগরে চীন ও জাপানের মাঝে বিতর্কের বিষয় হল সেনকাকু (দিয়াওইউইদাও) দ্বীপপুঞ্জ. দক্ষিণ চীনা সাগরে স্প্র্যাটলি (নানশা) এবং পারাসেল (সিশা) দ্বীপপুঞ্জের দাবি করছে চীন ও ফিলিপাইন ছাড়া ভিয়েতনাম, ব্রুনেই এবং মালয়েশিয়া.