মিশরে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালনকারীকে এখনও নির্বাচন করা হয় নি, জানিয়েছে “বি.বি.সি”. সাময়িক রাষ্ট্রপতির উপদেষ্টা আহমেদ আল-মুস্লিমানি জানান, “এখনও সঠিক মেয়াদ নির্ধারিত হয় নি প্রধানমন্ত্রী নিযুক্ত করার এবং সরকার গঠন করার. আলাপ-আলোচনা চলছে”. তিনি উল্লেখ করেন যে, নির্বাচনে “ভাই মুসলমান” আন্দোলনের প্রতিনিধিরাও অংশগ্রহণ করতে পারবে. আগে কর্তৃপক্ষের প্রতিনিধি এবং রাষ্ট্রীয় তথ্য এজেন্সি এ পদে মোহাম্মেদ আল-বারাদেই-কে নিযুক্ত করার কথা জানিয়েছিল. জানানো হয়েছিল যে, আল-বারাদেইয়ের নাম ভারপ্রাপ্ত রাষ্ট্রপতি আদলি মানসুর অনুমোদন করেছিলেন জরুর আলাপ-আলোচনার পর. কিন্তু পরে মিশরের সাময়িক রাষ্ট্রপ্রধানের দপ্তর এ খবর খণ্ডন করে. রক্ষণশীল “ভাই মুসলমান” আন্দোলনের রাজনৈতিক শাখা “মুক্তি ও ন্যায় পার্টির” প্রতিনিধিরা মোহাম্মেদ মুর্সির উত্খাতের নিন্দা করেছিল, এবং এখন আল-বারাদেই-কে নিযুক্ত করার বিরুদ্ধে মত প্রকাশ করছে. আন্তর্জাতিক পারমাণবিক শক্তি এজেন্সির প্রাক্তন নেতা ৭১ বছর বয়সী মোহাম্মেদ আল-বারাদেই এখন মিশরের উদারপন্থী ও বামপন্থী পার্টিগুলির জোটের নেতৃত্ব করছেন. ২০০৫ সালে তিনি নোবেল শান্তি পুরস্কারে ভূষিত হন.