পারস্পরিক সুখী ভালোবাসাময় জীবন পদোন্নতির ক্ষেত্রে সহায়তা করে, এই রকমের বিশ্বাস শতকরা ৬২ ভাগ রুশী লোকের. কাজের পোর্টাল সুপারজব.রু পরিবার, ভালবাসা, বিশ্বাস দিবসের আগে এক সমীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করে এই খবর দিয়েছে.

একই সময়ে প্রত্যেক দশম ব্যক্তিই মনে করেন যে, এই ধরনের অনুভূতি কাজের সময়ে ক্ষতিই করে, আর শতকরা ষোল ভাগ এই দুটি বিষয়ের মধ্যে কোন যোগই দেখতে পায় না. প্রসঙ্গতঃ অসুখী ভালোবাসা পদোন্নতির বিষয়ে বাধা সৃষ্টি করে বলে মনে করেছেন শতকরা ৩৬ ভাগ উত্তর দাতা. উল্টো মত রাখেন শতকরা ২২ ভাগ রুশী লোক, প্রায় তত জনই মনে করেন যে, একটার সঙ্গে অন্যটার সম্পর্ক নেই.

সব মিলিয়ে প্রশ্নোত্তর থেকে বোঝা গিয়েছে যে, শতকরা ৪৫ ভাগ উত্তর দাতার জন্য পদোন্নতির চেয়ে ভালোবাসা বেশী জরুরী, যদিও প্রায় একের তিন ভাগ ঠিক করতে পারেন নি, কি চান. স্বামী বা স্ত্রীর কোন একজনের পেশা কি বিবাহের ক্ষেত্রে কোন অন্তরায় হয়েছিল, এই প্রশ্নের উত্তরে শতকরা ৮৭ ভাগ নেতিবাচক উত্তর দিয়েছেন ও মাত্র ৬ ভাগ ইতিবাচক.