মিশরের সাময়িক রাষ্ট্রপতি আদলি মানসুর, আশা করা হচ্ছ যে, শুক্রবার নতুন সাংবিধানিক ঘোষণাপত্র প্রকাশ করবেন, যা অন্তর্বর্তী কালে দেশে সংবিধানের ভূমিকা পালন করবে. এ সম্বন্ধে জানিয়েছে মিশরের “আল-আখ্রাম” সংবাদপত্র. ঘোষণাপত্রে থাকবে ১২টি ধারা, যার মধ্যে প্রধান গুলি হবে – বিশেষজ্ঞদের নিয়ে অতি ব্যাপক ক্ষমতাসম্পন্ন সাময়িক সরকার গঠন, মিশরের পার্লামেন্টের উচ্চ কক্ষ ভেঙ্গে দেওয়া, সংবিধানে সংশোধন সংক্রান্ত কমিশন গঠন করা. অনুমান করা হচ্ছে যে, কমিশন কাজ শুরু করার তিন মাসের মধ্যে নতুন বুনিয়াদী আইনবিধি প্রণয়ন করবে. তারপর সার্বজনীন গণভোট হবে নতুন সংবিধান অনুমোদনের জন্য, তারপর পার্লামেন্টের নির্বাচন হবে, আর তার পর রাষ্ট্রপতির নির্বাচন হবে. বৃহস্পতিবার মিশরের রাষ্ট্রপতির পদ গ্রহণের পর মানসুর ভাবী প্রধানমন্ত্রী পদের প্রার্থীর জন্য সক্রিয়ভাবে পরামর্শ করেছেন. সবচেয়ে সম্ভাব্য প্রার্থীদের মধ্যে নাম করা হচ্ছে বিরোধী, “দস্তুর” পার্টির প্রধান মুহাম্মেদ আল-বারাদেই, মিশরের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী কামাল আল-গানজুরি এবং দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কের প্রাক্তন প্রধান ফারুক আল-আকদা.