ইউরোপে তার বিমানের উড়ানজনিত কেচ্ছার পরে বলিভিয়ার রাষ্ট্রপতি এভো মোরালেস নির্বিঘ্নেই স্বদেশে ফিরেছেন. স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমগুলি জানাচ্ছে, যে লা-পাস এয়ারপোর্টে তাকে অভ্যর্থণা জানিয়েছে তার শত শত অনুগামী. বুধবার ফ্রান্স, পর্তুগাল, ইতালি ও স্পেন বলিভিয়ার রাষ্ট্রপতির বিমানকে তাদের আকাশে উড়ানের অনুমতি না দেওয়ায়, বাধ্য হয়ে বিমানটি ভিয়েনা এয়ারপোর্টে অবতরন করতে বাধ্য হয়েছিল,

      সতর্কতার কারণ ছিল এই আশঙ্কা, যে মোরালেসের বিমানে এডওয়ার্ড স্নোডেন থাকতে পারে. লাতিন আমেরিকার বহু দেশ এর তীব্র সমালোচনা করে বলেছে, যে আন্তর্জাতিক আইন খর্ব করে বলিভিয়ার রাষ্ট্রপতি মোরালেসের বিমানটিকে ভূপাতিত করার মতলব করা হয়েছিল.