বলিভিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী  দাভিদ চোকেউয়ানকা এই গুজব নস্যাত্ করে দিয়েছেন, যে প্রাক্তন সিআইএ কর্মী এডওয়ার্ড স্নোডেন বলিভিয়ার রাষ্ট্রপতি এভো মরালেসের  প্লেনে সফর করছিল. ইতিপূর্বে মস্কো সফরকালে মরালেস ঘোষণা করেছিলেন, যে বলিভিয়া স্নোডেনকে আশ্রয় দেওয়ার প্রশ্নটি বিবেচনা করতে প্রস্তুত. বলিভিয়ার রাষ্ট্রপতির বিমানে স্নোডেন রয়েছে - এই গুজব ছড়িয়ে পড়বার পরেই ফ্রান্স ও পর্তুগাল মরালেসের বিমানকে তাদের আকাশে নিরাপদ অলিন্দ দিতে অস্বীকার করে. প্লেনটি বাধ্য হয়ে পূর্ব পরিকল্পনা বহির্ভুত অস্ট্রিয়ায় অবতরণ করতে বাধ্য হয়েছে.

     অস্ট্রিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তাদের তরফ থেকে পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছে, যে ঐ বিমানে স্নোডেন ছিল না এবং বুধবার সকালে বলিভিয়ার রাষ্ট্রপতির বিমান রাজধানী লা পাসের উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে গেছে.