বুধবার মিশরের জাতীয় উদ্ধার ফ্রন্টের প্রতিনিধি খালেদ দাউদ ঘোষণা করেছেন, যে রাষ্ট্রপতি মুহাম্মদ মোর্সির পদত্যাগ করতে অস্বীকার করার অর্থ -  দেশে গৃহযুদ্ধের সূচনা. শহরে গঞ্জে রাস্তায় নামা লাখ লাখ ক্ষিপ্ত জনতার সাথে অনবরত মারমুখী সংঘর্ষ হচ্ছে মোর্সির সমর্থক ইসলামিদের, যারা মিশরের রাষ্ট্রপতির আইনানুগ ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত থাকার পক্ষপাতী.

       স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম কতৃক প্রচারিত খবর অনুযায়ী, মিশরের  সেনাবাহিনী রাজনৈতিক দলগুলিকে বচসা মিটিয়ে বিক্ষুব্ধ জনসাধারণকে রাস্তা থেকে বাড়ি ফেরানোর জন্য যে ৪৮ ঘন্টার চরম শর্ত দিয়েছিল, তার মেয়াদ প্রায় অতিক্রান্ত হতে চলেছে. সেনাবাহিনী দাবী করছে - হয় মোর্সির ক্ষমতা নিরপেক্ষ জাতীয় ঐক্যের সরকারের হাতে  অথবা রাষ্ট্রপতি পরিষদের হাতে সমর্পণ করতে. মোর্সি দূরদর্শনে জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিয়ে সেনাবাহিনীর দাবী কার্যত নস্যাত্ করে দিয়েছেন. বিরোধী শিবির মোর্সির ভাষণকে গৃহযুদ্ধে ইন্ধন যোগানো বলে ধরে নিয়েছে. এর প্রত্যুত্তরে মিশরের সেনাবাহিনী জানিয়ে দিয়েছে, যে 'সন্ত্রাসবাদী, উগ্রপন্থী ও নির্বোধদের' কবল থেকে দেশবাসীকে বাঁচানোর জন্য তারা জান লড়িয়ে দেবে.