গুগল কর্পোরেশনের সরকারি ব্লগে প্রচার করা হয়েছে, যে কোম্পানি তাদের সাইটে বাচ্চাদের অশ্লীল সব চিত্রমালার জন্য পৃথক তথ্যভান্ডার রচনা করে, সেখানে প্রবেশাধিকার দেবে আইনরক্ষা কর্নীদের, দাতব্য প্রতিষ্ঠানগুলিকে ও অন্যান্য কোম্পানীকে.

    প্রত্যেকটি ছবিকে স্বকীয় পরিচায়ক দেওয়া হবে, যার সূত্রে মুহুর্তের মধ্যে অশ্লীল ছবি উদ্ঘাটন করা সম্ভব হবে. শিশুদের উপর শারিরীক অত্যাচার সম্বলিত চিত্রমালা প্রচারের মোকাবিলা ও অনুরুপ কনটেন্টের ইন্টারনেটে বিস্তার গোড়াতেই রোখার জন্য অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের খাতে গুগল ৭০ লক্ষ ডলার মঞ্জুর করেছে.

    ইন্টারনেট ওয়াচ ফাউন্ডেশন নামক বিশ্ব তহবিলের বিশেষজ্ঞদের মতে - জঘন্য কুরুচিপূর্ণ কনটেন্টের বিস্তার একসারি দেশে রোখবার জন্য প্রয়োজন সারা বিশ্বজুড়ে একযোগে কঠোর হাতে তা অঙ্কুরেই দমন করা.