মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সিরিয়ার বিরোধীপক্ষকে সামরিক সাহায্য দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে, এ অজুহাত দেখিয়ে যে বাসার আসদের সৈন্যবাহিনী নাকি একাধিকবার বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করেছে. সাংবাদিকদের জন্য বিশেষ টেলিফোন ব্রিফিংয়ে এ বিবৃতি দিয়েছেন হোয়াইট হাউজের জাতীয় নিরাপত্তা সংক্রান্ত সহকারী উপদেষ্টা বেন রডস. সেই সঙ্গে তিনি জানান যে, মার্কিনী গোয়েন্দা বিভাগের প্রকৃতপক্ষে সন্দেহ নেই যে, সিরিয়ায় জারিন গ্যাস ব্যবহৃত হয়েছিল – তার ফলে সেখানে নিহত হয়েছিল প্রায় ১৫০ জন. মে মাসের গোড়ায় রাষ্ট্রসঙ্ঘের বিশেষজ্ঞরা, সিরিয়ায় রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের প্রশ্ন অধ্যয়ন করে একেবারে উল্টো সিদ্ধান্তে পৌঁছেছিলেন. জারিন গ্যাস সত্যিই ব্যবহৃত হয়েছিল, তবে আসদের বাহিনীর দ্বারা নয়, বরং বিরোধীপক্ষের জঙ্গীদের দ্বারা. বহু বিশেষজ্ঞ এ মত প্রকাশ করছেন যে, সাম্প্রতিক ঘটনাবলি মনে করিয়ে দেয় ২০০৩ সালের কথা, যখন মার্কিনীরা ইরাকে অনুপ্রবেশ করেছিল ব্যাপক নরহত্যার অস্ত্র ধ্বংসের অজুহাতে, যা সেখানে কোথাও তারা পায় নি.