মস্কোয় বৃহস্পতিবার “জি-২০” গ্রুপের “Civil 20 Summit” সামাজিক সম্মেলন শুরু হয়েছে. এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে ১৩-১৪ই জুন, এবং তা শেষ হবে “জি-২০” গ্রুপে সরকারীভাবে রাশিয়ার সভাপতিত্বের কাঠামোতে. এ সম্মেলনের মুখ্য উদ্দেশ্য – বিশ্বব্যাপী নাগরিক সমাজ, রাজনীতিজ্ঞ ও সিদ্ধান্ত গ্রহণকারী ব্যক্তিদের ফলপ্রসূ সংলাপ. এই “সিভিল ২০”-র সুপারিশ অনুযায়ী “জি-২০” দেশগুলির শেষ ঘোষণাপত্রে পরিবর্তন আনা যেতে পারে. রাশিয়া প্রথম সভাপতি-দেশ, যা এমন ফর্মেটে “সিভিল ২০” সম্মেলন আয়োজন করছে. সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রাশিয়ার উপ-প্রধানমন্ত্রী আর্কাদি দ্ভোরকোভিচ বলেন যে, এ ক্ষেত্রে বুনিয়াদী প্রশ্ন হল নাগরিক স্বাধীনতা ও রাষ্ট্রের নিরাপত্তার অনুপাত. দ্ভোরকোভিচ বলেন, “এমন প্রশ্ন, মনে হয়, রাশিয়ার সমস্ত শাসন সংস্থায়, এবং পৃথিবীর যেকোনো দেশে – ইউরোপে, এশিয়ায়, আফ্রিকায় উদ্ভূত হয়, তা দেশের উপর নির্ভর করে না. সমস্ত দেশের সরকারকে এ ভারসাম্য অনুসন্ধান করতে হচ্ছে. আমরা এ নিয়ে কাজ করছি, তা সফল কি না – তার মূল্যায়ন করবে সমাজ”.