'গ্রেট লাইভ মিউজিক' নামক আসন্ন ইন্দো-রুশী জাজ ও রক মিউজিক ফেস্টিভ্যালে প্রতিদ্বন্দিতাকারীদের বাছাই-পর্ব সদ্য শেষ হল. এই ফেস্টিভ্যালের সভানেত্রী এবং দিল্লিস্থিত রুশ ভবনের মুখ্য আধিকারিক ক্সেনিয়া গোরিয়ায়েভা 'রেডিও রাশিয়া'কে দেওয়া ইন্টারভিউয়ে স্মরণ করিয়ে দিচ্ছেন, যে এটা ইতিমধ্যেই দ্বিতীয় এরকম ফেস্টিভ্যাল হতে চলেছে - প্রথমবার এরকম ফেস্টিভ্যাল অনুষ্ঠিত হয়েছিল চলতি বছরেরই ফেব্রুয়ারী মাসে. সেখানে প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছিল ভারত, রাশিয়া, ব্রিটেন ও ইউক্রেন থেকে ২০টি সঙ্গীত গোষ্ঠী.

     আমরা ইতিমধ্যেই প্রতিযোগিতায় যোগদান করার জন্য আবেদনকারী ভারতের ২৭টি সঙ্গীত গোষ্ঠীর অ্যডিশন নিয়েছি, যাদের মধ্যে দ্রুতলয়ের সুর-আবহের প্রেক্ষাপটে ইংরেজি ও হিন্দি ভাষায় সজীব কন্ঠে গান গাওয়া তরুন সঙ্গীত গোষ্ঠীর সংখ্যা কম নয়. ভারতীয় সঙ্গীত গোষ্ঠীগুলির জন্য বাছাই-পর্ব চলবে ৩১শে জুলাই পর্যন্ত. এখান থেকে আমরা বেছে নেব ৬টি গোষ্ঠীকে, যারা ফাইন্যাল সঙ্গীতানুষ্ঠানে প্রতিদ্বন্দিতায় অবতীর্ণ হবে. রুশ ভবন পরিকল্পনা করেছে ঐ সঙ্গীতানুষ্ঠানটির আয়োজন করার ডিসেম্বর মাসে দিল্লির অন্যতম ফ্যাশনদুরস্ত জাজ এ্যান্ড রক ক্লাব - 'ব্লু ফ্রগ'-এ.

    রুশ ভবন এই বছরেই তাদের কর্মকান্ড শুরু করেছে. এর উদ্যোক্তা উত্সাহী শিল্পজীবিরা, যারা আমাদের দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্যগত পদ্ধতিতে সাংস্কৃতিক বিনিময়ের প্রক্রিয়া শুরু করার জন্য উত্সুক. ক্সেনিয়া গোরিয়ায়েভা জানাচ্ছেন, যে ভারতে এরকম বাছাই-পর্বের ঠিক আগে রাশিয়াতে এই বাছাই-পর্ব সম্পন্ন করা হয়েছে. -

    রাশিয়ায় সেন্ট-পিটার্সবার্গে এরকম অ্যডিশনের আয়োজন করা হয়েছিল, যেখানে যোগদানে ইচ্ছুক ২৭০টি মিউজিক গ্রুপের তরফ থেকে আবেদন পত্র জমা পড়েছিল. বিচারকমন্ডলীর মধ্যে ছিলেন প্রখ্যাত জাজ ও রক সঙ্গীতশিল্পীরা. অন- লাইন ভিডিও কনফারেন্সে দিল্লিস্থিত রুশ ভবন ১৮টি দলকে বেছে নিয়েছিল, যাদের মধ্যে ৬টি দলকে ফাইন্যালে উত্তীর্ণ করা হয়েছে.

   সঙ্গীত প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্বের জলসাটির আয়োজন করা হবে ইদানীং রুশবাসীদের মধ্যে অন্যতম প্রিয় জায়গা - গোয়ায় আগামী ফেব্রুয়ারী মাসে. আশা করা হচ্ছে যে উঠতি জাজ ও রক সঙ্গীতের প্রতিভার পাশাপাশি সেখানে আসর জমাবেন জনবন্দিত সঙ্গীত পরিবেশকরাও.