দক্ষিণ কোরিয়া পিয়ংইয়ংয়ের সাথে আস্থাপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে তোলার জন্য বনিয়াদ সৃষ্টির আশা করে, যদি উভয় পক্ষ আগামী সপ্তাহে আলাপ-আলোচনা শুরু করে. এ সম্বন্ধে শুক্রবার বলেছেন দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রপতির প্রেস-সেক্রেটারি লি চুন হেন. সেই সঙ্গে তিনি সাংবাদিকদের এ প্রশ্ন সম্বন্ধে মন্তব্য করতে অস্বীকার করেন যে, সম্ভাব্য আলাপ-আলোচনার সময় উত্তর কোরিয়ার প্রতিনিধিরা দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রপতি পাক কীন হে-র সাক্ষাতের জন্য আসতে পারে কি না. আগে দক্ষিণ কোরিয়া আগামী বুধবার সেওলে মন্ত্রীদের পর্যায়ে আলাপ-আলোচনা চালানোর উদ্যোগ প্রকাশ করেছিল. এ উদ্যোগ কেসোন যৌথ শিল্পাঞ্চলে কাজ পুনরারম্ভ সম্পর্কে সরকারী পর্যায়ে কর্ম-ভিত্তিক আলাপ-আলোচনা শুরু করার জন্য পিয়ংইয়ংয়ের বৃহস্পতিবারের প্রস্তাবের উত্তর. দক্ষিণ কোরিয়ার প্রচার মাধ্যম উল্লেখ করছে যে, পিয়ংইয়ং অনুরূপ উদ্যোগ প্রকাশ করেছে ক্যালিফোর্নিয়ায় চীনের সভাপতি সি জিনপিন এবং মার্কিন রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামার সাক্ষাতের একদিন আগে. বিশ্লেষকদের কথায়, উত্তর কোরিয়ার সমস্যা মার্কিন-চীনা সাক্ষাতে একটি মুখ্য আলোচ্য বিষয় হতে পারে.