২০১৫ সালে বর্তমানে নতুন করে বানানো হওয়া ক্যাথেড্রাল বা জুম্মা মসজিদ মস্কো শহরে খোলা হতে চলেছে.

এই নিয়ে বলেছেন রাশিয়ার মুফতি সভার সভাপতি শেখ রাভিল গাইনুতদিন সারা রাশিয়া মুসলমান সম্মেলনে, যা মস্কো শহরে হয়েছে, তিনি ঘোষণা করেছেন:

“রাশিয়া বহু লক্ষ রুশ মুসলমানদের প্রিয় পিতৃভূমি. এই প্রীতির প্রতীক আল্লাহর কৃপায় আধুনিকীকরণের পরে হবে মস্কোর ক্যাথেড্রাল মসজিদ বা জুম্মা মসজিদ. ২০১৫ সালের মে মাসে পরিকল্পনা রয়েছে পুনর্গঠনের পরে মসজিদ আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্বোধন করা হবে, যখন একই সঙ্গে এই দেশে পালিত হবে সোভিয়েত জনগনের ফ্যাসীবাদের বিরুদ্ধে সত্তর বছরের উত্সব”.

পুনর্গঠনের পরে এই মসজিদে বারো হাজার পর্যন্ত মুসলমান নামাজ করতে পারবেন. এটা পুরনো মসজিদ ভবনের ছয় গুণ বেশী. বর্তমানে এই মসজিদে গম্বুজ লাগানোর কাজ শেষ হতে কয়েক দিন মাত্র বাকী, কিন্তু ইতিমধ্যেই বলা যেতে পারে যে, প্রধান মসজিদের প্রথম অধ্যায়ের কাজ, যা এই প্রাসাদের কংক্রীটের কাঠামো, ছোট গম্বুজ গুলি, দুটি ৭৮ মিটার উচ্চতার মিনার তৈরী ইত্যাদি দিয়ে শেষ হয়েছে, এর পরে এখানে রাশিয়া ও তুরস্কের ওস্তাদরা ভিতরের কাজ শুরু করবেন.

মস্কোতে বর্তমানে প্রায় ২০ লক্ষ মুসলিম লোক বাস করেন, আর তাদের জন্য মসজিদের অভাব রয়েছে অনেক দিন. এই মসজিদ হলে, তার ভবন হয়তো কিছুটা সুরাহা করে দিতে পারে.

প্রায় তত মুসলিম লোকই রয়েছেন মস্কো শহরের বাইরে চারপাশেও. মস্কো উপকণ্ঠের চারটি নগরীতে এখনই মসজিদ রয়েছে, আরও ছয় টিতে নির্মাণ কার্য চলছে. কয়েকদিন আগে মস্কো উপকণ্ঠের শহরগুলিতে মসজিদ নির্মাণের প্রসঙ্গ নিয়ে রাজ্যপালের সঙ্গে মুসলিম সমাজের প্রধান দেখা করতে গিয়েছিলেন, যাতে অন্তত আরও আটটি শহরে মসজিদ তৈরী করা যায়.

রাজধানী এলাকাই রাশিয়ার একমাত্র এলাকা নয়, যেখানে মসজিদ কম থাকার অসুবিধা হচ্ছে না, এটাই রেডিও রাশিয়াকে জোর দিয়ে উল্লেখ করে শেখ রাভিল গাইনুতদিন বলেছেন:

“মসজিদ তৈরী করার খুবই দরকার. সেই সব রাজ্যেও যেমন সুদুর প্রাচ্য, অলিম্পিকের শহর সোচীতে, রাশিয়ার মধ্যাঞ্চলে, যেখানে মুসলিম সম্প্রদায় বহুদিন ধরেই রয়েছে. আইনের সহায়তা নিয়ে আমরা বিভিন্ন শহর ও এলাকার প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলেছি, সেখানে মসজিদ বানানোর উপযুক্ত জমি পাওয়ার চেষ্টা চলছে. আর এখন বেশ কিছু এলাকাতে এই ধরনের মসজিদ তৈরী করা হচ্ছে”.

আধুনিক রাশিয়াতে – প্রায় দুই কোটি মুসলমানের বাস, মসজিদের সংখ্যা প্রায় আট হাজার ও তা নিয়মিত ভাবেই বাড়ছে. তাতারস্থানের রাজধানী কাজান শহরের উপকণ্ঠে কয়েকদিন আগে নতুন মসজিদ বানানো হয়েছে. তার নাম খুবই প্রতীকী ধরনের রাখা হয়েছে – আশা – তুর্কী ভাষায় উমিদ...