পাকিস্তানের নিরাপত্তা বাহিনী আফগানিস্তানের সাথে সীমানায় দেশের “উপজাতিদের অঞ্চলে” চরমপন্থীদের অবস্থান-স্থলের উপর ব্যাপক পরিসরের আক্রমণ শুরু করেছে. এ অঞ্চলে সন্ত্রাসবিরোধী অভিযান শুরু হয় ২৯শে মে মার্কিনী ড্রোন বিমানের দ্বারা পাকিস্তানী তালিবদের “তহরিক-ই-তালিবান পাকিস্তান” আন্দোলনের সারিতে “দু নম্বর ব্যক্তি” ফিল্ড কম্যান্ডার ওয়ালি উর-রহমানকে ধ্বংস করার পরে. এ সম্বন্ধে মঙ্গলবার জানিয়েছে পাকিস্তানের “এক্সপ্রেস ট্রিবিউন” পত্রিকা, যা উদ্ধৃত করেছে দেশের সামরিক অধিনায়কমন্ডলীর প্রতিনিধির বিবৃতি এবং স্থানীয় অধিবাসীদের উক্তি. পত্রিকাটির তথ্য অনুযায়ী, সামরিক ক্রিয়াকলাপের জায়গার দিকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে ফ্রন্টের বিমানবাহিনী এবং পাকিস্তানের স্থলবাহিনীর অংশ. এই বিশেষ অভিযানে ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হচ্ছে গোলন্দাজ বাহিনী, যা দুর্গম পার্বত্য অঞ্চলে জঙ্গীদের অবস্থান-স্থলের উপর গোলা বর্ষণ করছে.