গ্রেট-বৃটেন সিরিয়ার বিরোধীপক্ষকে সম্ভাব্য অস্ত্র সরবরাহের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে সিরিয়া সম্পর্কে আন্তর্জাতিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ার পরে. এ সম্বন্ধে সোমবার “ফ্রান্স প্রেস” সংবাদ এজেন্সি জানিয়েছে বৃটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী উইলিয়াম হেগের উদ্ধৃতি দিয়ে. ২৭শে মে ইউরোসঙ্ঘের দেশগুলির পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা সিরিয়ায় অস্ত্র সরবরাহের নিষেধাজ্ঞা প্রলম্বন অথবা বাতিল করা নিয়ে সমঝোতায় আসতে পারে নি. তখন গ্রেট-বৃটেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছিলেন যে, নিষেধাজ্ঞা প্রলম্বনে ইউরোসঙ্ঘের দেশগুলির সম্মতির অভাবের অর্থ হল বাস্তবিকপক্ষে তা বাতিল করা. সিরিয়া সম্পর্কে সম্মেলন আয়োজনের উদ্যোগ মে মাসের গোড়ায় প্রকাশ করেছিলেন রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরোভ এবং মার্কিনী পররাষ্ট্র সচিব জন কেরি, যা ২০১২ সালের ৩০শে জুন জেনেভা সম্মেলনের ক্রমানুবর্তন হওয়া উচিত্. সিরিয়ার সরকার ও বিরোধী শক্তিগুলির প্রতিনিধিদের অংশগ্রহণে আন্তর্জাতিক সম্মেলনের প্রধান কর্তব্য হল সিরিয়া সঙ্ঘর্ষ বন্ধ করার পথের অনুসন্ধান, তবে এখনও তার তারিখ নির্ধারণ করা হয় নি.