রাষ্ট্রসঙ্ঘ সিরিয়ায় অস্ত্র সরবরাহের নিষেধাজ্ঞা প্রলম্বন না করা নিয়ে ইউরোসঙ্ঘের সিদ্ধান্ত সম্পর্কে মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকছে, অথচ এ সিদ্ধান্ত কিছু কিছু দেশকে সিরিয়ার বিরোধীপক্ষকে সাহায্য পাঠানোর অধিকার দেয়. এ সম্বন্ধে মঙ্গলবার নিউ-ইয়র্কে এক ব্রিফিংয়ে বলেছেন রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সম্পাদকের সহকারী সরকারী প্রতিনিধি এদুয়ার্দো দেল-বুয়েই. সেই সঙ্গে তিনি বিশ্ব সংস্থার আগের এ স্থিতি পুনরাবৃত্তি করেন যে, “সামরিক মীমাংসা সিরিয়া প্রশ্নের উত্তর নয়”. বর্তমানে রাশিয়া ো মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উদ্যোগে সিরিয়ায় কর্তৃপক্ষ ও সশস্ত্র বিরোধীপক্ষের অংশগ্রহণে আন্তর্জাতিক সম্মেলন আয়োজনের চেষ্টা করা হচ্ছে, যাতে তাদের মাঝে রাজনৈতিক সংলাপ শুরু করা এবং অন্তর্বর্তী সরকার গঠন করা যায়. এর প্রাক্কালে ইউরোসঙ্ঘের দেশগুলির পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা সিরিয়ায় অস্ত্র সরবরাহের নিষেধাজ্ঞা প্রলম্বন করা অথবা তা বাতিল করা সম্পর্কে সমঝোতায় আসতে পারেন নি. ইউরোসঙ্ঘের কূটনীতির প্রধান ক্যাথ্রিন অ্যাশটন এ প্রশ্নে নিজস্ব সিদ্ধান্ত গ্রহণে ইউরোসঙ্ঘের প্রত্যেক সদস্যের অধিকারের কথা বলেছেন. সিরিয়া সম্পর্কে অস্ত্রের নিষেধাজ্ঞা সহ সাধারণ নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হচ্ছে ৩১শে মে.