দক্ষিণ কোরিয়া সোমবার কোরিয়া উপদ্বীপের পারমাণবিক সমস্যা নিয়ে ছয়পাক্ষিক আলাপ-আলোচনার প্রক্রিয়া পুনরারম্ভ সম্বন্ধে পিয়ংইয়ংয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখান করেছে. দক্ষিণ কোরিয়ার ঐক্য সাধন সংক্রান্ত মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি বলেন, “উত্তর কোরিয়া যদি সত্যি সত্যিই সংলাপ চায় তাহলে প্রথম পদক্ষেপ হওয়া উচিত্ কেসন শিল্পাঞ্চল সম্পর্কে আলাপ-আলোচনার জন্য আমাদের বারংবারের আহ্বানে ইতিবাচক উত্তর দেওয়া”. দক্ষিণ কোরিয়ার মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি তাছাড়া দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রপতি পাক কীন হে-র প্রতি ব্যক্তিগত কটুক্তির জন্যও উত্তর কোরিয়ার সমালোচনা করেছেন. আগে উত্তর কোরিয়ার প্রচার মাধ্যম পাক কীন হে-কে অভিহিত করে “মোকাবিলার উন্মাদ” বলে, তাঁর এ বিবৃতির উত্তরে যে, উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম চেন ঈন কোরিয়া উপদ্বীপে উত্তেজনা বৃদ্ধি হয় এমন নীতি অনুসরণ করছে. জানানো হয়েছিল যে, এর প্রাক্কালে কিম চেন ঈনের বিশেষ প্রতিনিধি উত্তর কোরিয়ার সেনাবাহিনীর প্রধান রাজনৈতিক বিভাগের অধিকর্তা চ্ভে রেন হে চীনের সভাপতি সি জিনপিনের সাথে সাক্ষাতে কোরিয়া উপদ্বীপের অ-পারমাণবিকীকরণ সংক্রান্ত ছয়পাক্ষিক আলাপ-আলোচনার প্রক্রিয়া পুনরারম্ভ সম্বন্ধে উত্তর কোরিয়ার প্রস্তুতির কথা ঘোষণা করেছিলেন.