সিরিয়া সফর করা রাশিয়ার সাংবাদিকরা খালেব (আলেপ্পো) শহরের উপকণ্ঠে ১৯শে মার্চ বিরোধীপক্ষের জঙ্গীদের দ্বারা রাসায়নিক অস্ত্রের আক্রমণের ভিডিও-তথ্য রাষ্ট্রসঙ্ঘের সচিবালয়ে জমা দিয়েছে. এ কথা সমর্থন করেছেন রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সম্পাদকের প্রতিনিধির ডেপুটি ফারহান হক. তাঁর কথায়, এ তথ্য পাঠানো হবে বিশেষজ্ঞ দলের প্রধান - ওকা সেলস্ট্রিয়োমকে, যাঁরা সিরিয়ায় ব্যাপক নরহত্যার অস্ত্রের সম্ভাব্য ব্যবহার তদন্ত করছে. মার্চ মাসের শেষ দিকে দামাস্কাস রাষ্ট্রসঙ্ঘের সচিবালয়কে জঙ্গীদের দ্বারা রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের কথা জানিয়েছিল. রাশিয়ার টেলিভিশন চ্যানেলের সাংবাদিকা আনাস্তাসিয়া পপোভার রিপোর্টেজে বিষাক্ত বস্তু ব্যবহারের ঘটনা সমর্থিত হয়েছে – অকুস্থল থেকে ভিডিও তথ্য ছাড়াও এতে রয়েছে প্রত্যক্ষদর্শীদের বর্ণনা ও ডাক্তারদের সাক্ষ্য, যাদের কাছে নিহত ও ক্ষতিগ্রস্তদের আনা হয়েছিল, এবং খালেব বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞদের সাক্ষ্য. দামাস্কাসের সরকারী আবেদনের উত্তরে রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সম্পাদক বান কি মুন এ অঞ্চলে বিশেষ মিশন পাঠান. কিন্তু রাষ্ট্রসঙ্ঘের সচিবালয় সিরিয়ায় রাসায়নিক অস্ত্রের সম্ভাব্য ব্যবহার সম্পর্কে অন্যান্য খবরও তদন্ত করার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর সিরিয়ার কর্তৃপক্ষ এই বিশেষজ্ঞ দলকে দেশে আসার অনুমতি দিচ্ছে না.