0সিরিয়ার মূল (!) বিরোধী জাতীয় জোট বৃহস্পতিবারে তুরস্কের ইস্তানবুল শহরে নতুন করে আলোচনায় বসতে চলেছে. এখানে তারা রুশ- মার্কিন প্রস্তাব, যাতে বিদ্রোহী ও প্রশাসনের প্রতিনিধিদের আলোচনার টেবিলে বসানো যায়, তা নিয়ে আলোচনা করবে. তাদের তিনদিনের বৈঠকে, আশা করা হচ্ছে যে জোট, নতুন সভাপতি নির্বাচন করবে, আর জোটের প্রসার বাড়িয়ে তাতে নতুন সদস্য গ্রহণ করবে ও অন্তর্বর্তী কালীণ বিদ্রোহী সরকারের ভাগ্য নির্ধারণ করবে. এএফকি সংস্থাকে বিরোধী দলের প্রতিনিধি এই খবর দিয়েছেন. এই বৈঠক শুরু হতে চলেছে তখন, যখন বিদ্রোহীরা রাষ্ট্রপতি বাশার আল-আসাদের সেনাবাহিনীর এবং লেবাননের শিয়া আন্দোলন, হেজবোল্লার হাতে মধ্য সিরিয়াতে বিদ্রেহীদের ঘাঁটি কুসাইর এলাকায় প্রবল আক্রমণের সামনে পড়েছে.

এই সম্মেলনের নেপথ্যে জোটের সদস্য সালেম আল-মোসলেট বলেছেন যে, রুশ-মার্কিন শান্তি উদ্যোগ, যাকে জেনেভা - ২ বলা হয়েছে, তাতে আসাদ পদত্যাগ করবেন বলে একটি শর্ত রয়েছে. কিন্তু তিনি যোগ করেছেন যে, বৃহস্পতিবারের আলোচ্য তালিকায় এই কথা উল্লেখ করা হয় নি.কিন্তু যা আমার কাছে স্পষ্ট, তাহল যে, যদি বিরোধীদের শর্ত মেনে না নেওয়া হয়, তবে আমি মনে করি যে আমরা এটাকে লাভরভের সম্মেলনই বলবো, - তিনি বলেছেন -- রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রী লাভরভের কথা উল্লেখ করে, যাকে পশ্চিমে মনে করা হয় আসাদের মূল সহযোগী বলে.

0 এই বৈঠক শুরু হচ্ছে আসাদ- বিরোধী বিদ্রোহীদের জর্ডনের রাজধানী আম্মান শহরে সিরিয়াতে শান্তি প্রয়াসের উদ্দেশ্যে করা পরামর্শ সভার একদিন পরেই, যে দেশে মার্চ ২০১১ সাল থেকে একটি ক্রবর্ধমান সঙ্কটের কারণে নব্বই হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে (

তথ্য এএফপি

0).এই পরামর্শ সভায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র সচিব জন কেরি ও গ্রেট ব্রিটেন থেকে তাঁর সহকর্মী উইলিয়াম হেগ উপস্থিত ছিলেন. বৃহস্পতিবার খুব সকালে দেওয়া পরামর্শ সভা শেষের তাঁদের

বিবৃতিতে

0 বলা হয়েছে যে, সিরিয়ার মিত্র জোটের দেশ গুলি আসাদকে বলেছে শান্তির প্রয়াসে নিরত থাকতে, তাঁকে সাবধান করে দেওয়া হচ্ছে যে,

বাকিরা বিরোধীদের সমর্থন করা সক্রিয় করবে, যদি আসাদ একটি রাজনৈতিক ভাবে ক্ষমতা হস্তান্তরের ব্যবস্থা না করে দেন

0.