তুরস্ক-সিরিয়া সীমান্ত অঞ্চলে দুটি বিস্ফোরণের পরে আঙ্কারা এক মাসের জন্য সিরিয়ার সাথে সীমান্ত-চৌকি বন্ধ করেছে, যে বিস্ফোরণের ফলে ৫১ জন নিহত হয়েছিল. এ সম্বন্ধে জানিয়েছে স্থানীয় প্রচার মাধ্যম. কথা হচ্ছে ইয়াইলাদাগি সীমান্ত-চৌকির, যা তুরস্কের রাইহানলি শহর থেকে ৯০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত. ব্যতিক্রম শুধু সিরিয়ায় অবস্থিত তুরস্কের নাগরিকদের জন্য, যারা আগের মতোই দেশে ফিরতে পারবে, এবং সিরিয়ার সেই নাগরিকদের জন্য, যাদের ট্রানজিট হিসেবে তুরস্ক পার হতে হচ্ছে. তুরস্ক থেকে কাউকে সিরিয়ায় যেতে দেওয়া হবে না. তাছাড়া তুরস্কের কর্তৃপক্ষ দেশে নিরাপত্তা ব্যবস্থা বাড়ানোর নির্দেশ দিয়েছে. জানানো হয়েছে যে, ১৫ মিনিটের ব্যবধানে দুটি বোমা বিস্ফোরিত হয় ১১ই মে, তুরস্কের রাইহানলি শহরে মেয়রের ভবনের কাছে এবং একটি শিল্পাঞ্চলে. বিস্ফোরিত হয় দুটি বিস্ফোরক বস্তু ভরা মোটরগাড়ি, যার ফলে ৫১ জন নিহত হয়. তুরস্ক এ ঘটনাকে সন্ত্রাস বলে অভিহিত করে এবং এর জন্য দায়িত্ব আরোপ করে সিরিয়ার উপর, কিন্তু সরকারী দামাস্কাস সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছে.