২০২৩ সালে কিছু লোককে মঙ্গলগ্রহে নিয়ে রাখা হবে বলে মার্স ওয়ান নামক প্রকল্পে একসাথে দশ হাজারেরও বেশী চিনে লোক নাম দিয়েছিল. তা স্বত্ত্বেও তাদের মধ্যে এখন এই প্রকল্প সম্ভব হবে কি না তা নিয়ে সন্দেহ জেগেছে. তার ওপরে অনেকেই যারা এর জন্য ১১ হাজার ডলারের সমান অর্থ জমা দিয়েছিল, তারা নিজেদের অর্থ ফেরত চাইছে বলে খবর দিয়েছে সোমবারে চিনের সংবাদপত্র “গুয়াঞ্জো ঝিবাও”.

মঙ্গলগ্রহ অবধি স্রেফ উড়ে যাওয়া নিয়ে সন্দেহের কারণ হয়েছে সিনহুয়া সংস্থা এই প্রকল্পের এক স্রষ্টার সঙ্গে সাক্ষাত্কার নেওয়ার পরে, যখন সেই ব্যক্তি ঘোষণা করেছে যে, এই যাত্রা খুব সম্ভবতঃ হবে না, যদি কোম্পানী মনে করে যে, এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করা সম্ভব হবে না.

এরই মধ্যে নাছোড়বান্দা চিনা সাংবাদিকরা খুঁজে বের করেছে যে, এই মার্স ওয়ান কোম্পানী নেদারল্যান্ডসে ২০১১ সালের জুন মাসে মাত্র একজন কর্মী আছে বলে নথিবদ্ধ করা হয়েছিল, খবর দিয়েছে ইতার তাস সংস্থা. বর্তমানে এই কোম্পানীর অফিস অ্যামর্সফোর্ট শহরে আছে আর তা আসলে একটা ভাড়া করা জায়গা, যাতে মাত্র কয়েকটা টেবিল চেয়ার রয়েছে. বর্তমানে এই প্রকল্পের আয়োজকরা, মঙ্গল অভিযানের প্রকল্পের নামে বিশ্বের ১২০টি দেশ থেকে প্রায় আশি হাজার লোকের নাম লিখিয়েছেন দশ লক্ষ ডলার জমা করেছে.