ভারতের প্রধানমন্ত্রী শ্রীমনমোহন সিং এবং চীনের রাষ্ট্রীয় পরিষদের প্রধানমন্ত্রী লি কেকিয়ান দু দেশের মাঝে ভূভাগীয় বিরোধ মীমাংসার নতুন প্রচেষ্টার প্রয়োজনীয়তার কথা স্বীকার করেছেন. এ সম্বন্ধে ভারতের প্রধানমন্ত্রী বলেছেন সোমবার দিল্লিতে মিলিত সাংবাদিক সম্মেলনে. তিনি যোগ করে বলেন, “সীমানায়শান্তি ও স্বস্তিবজায় রাখা হবে”. নিজের তরফ থেকে চীনের প্রধানমন্ত্রী তাঁর ভারত সফরের কর্তব্যের কথা বিশদে বর্ণনা করেন এ কথা উল্লেখ করে যে, তাঁর সফরের তিনটি লক্ষ্য হল “পারস্পরিক আস্থা প্রসার করা, সহযোগিতা চালিয়ে যাওয়া এবং একত্রে ভবিষ্যতের দিকে মনোযোগ দেওয়া”. তিনি যোগ করে বলেন যে, চীন ও ভারতের মাঝে নতুন ধরণের সম্পর্ক গঠন এবং উভয় দেশের সুস্থ বিকাশ “এশিয়া তথা সারা বিশ্বের জন্য প্রকৃত কল্যাণ হবে”. চীনের প্রধানমন্ত্রী রবিবার দিল্লি পৌঁছোন ভারতের প্রধানমন্ত্রী শ্রীমনমোহন সিংয়ের সাথে আলাপ-আলোচনার জন্য. আগে জানানো হয়েছিল যে, এ বছরের এপ্রিলে ভারত সরকার ঘোষণা করেছিল যে, চীনের সৈন্যবাহিনী চীনা-ভারত সীমানা লঙ্ঘন করে ভারতের লাদাখ অঞ্চলে অনুপ্রবেশ করেছিল. তবে চীনা পক্ষ এ বিবৃতি প্রত্যাখান করেছে.