রাষ্ট্রসঙ্ঘের খাদ্য দ্রব্য ও কৃষি কার্য সংস্থা নতুন খাদ্য পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছে, যাতে মানুষের ও জীব জন্তুদের খাবারের মধ্যে পোকামাকড় – পিঁপড়ে, ফড়িং, জোনাকি ও অন্যান্য পোকা ব্যবহারের চেষ্টা করা হচ্ছে. সোমবারে প্রকাশিত এক রিপোর্টে বলা হয়েছে যে, পোকারা সর্বত্র রয়েছে ও খুব দ্রুত বংশ বৃদ্ধি করে. তাছাড়া, পরিবেশের উপরে পোকাদের প্রভাব খুবই কম. তাদের দেহে খুব উচ্চমানের প্রোটিন রয়েছে ও তাছাড়া আরও অনেক পুষ্টিকর জিনিষ রয়েছে, যা খেতে না পাওয়া শিশুদের জন্য বাড়তি খাদ্য হতে পারে. রিপোর্টে বলা হয়েছে যে, বড় শিং ওলা জন্তুদের চেয়ে বেশ কয়েকটি সুবিধা বাড়তি দিতে পারে. উদাহরণ হিসাবে বলা হয়েছে যে, সেই গুলি অনেক কম কার্বন-ডাই অক্সাইড গ্যাস উত্পন্ন করে. বিশ্বে বর্তমানে প্রায় বিশ লক্ষ লোক প্রত্যহের খাদ্যে এই গুলি খাচ্ছেন, কারণ এই পোকা মাকড়ের শরীরে তামা, লোহা, ম্যাগনেসিয়াম ফসফরাস, জিঙ্ক, সেলেনিয়াম ইত্যাদি রয়েছে.