বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার উপকণ্ঠে ভবন ধ্বসে পড়ায় নিহতদের সংখ্যা ৮০৩ জনে পৌঁছেছে, জানিয়েছে “ফ্রান্স প্রেস” সংবাদ এজেন্সি সৈন্যবাহিনীর প্রতিনিধি মীর রাব্বি-র উদ্ধৃতি দিয়ে.আগে ৭৮২ জনের মৃত্যুর খবর জানানো হয়েছিল. আট-তলা ভবন রানা প্লাজা ধ্বসে পড়েছিল ২৪শে এপ্রিল. ঢাকার উপকণ্ঠে সাভার শহরে অবস্থিত এ ভবন সমাহারে ফাটল দেখা দিয়েছিল বিপর্যয়ের প্রাক্কালে, এবং তা পোষাক সেলাই কারখানা ও দোকানের কর্মীদের মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টি করেছিল, কিন্তু কারখানার পরিচালকমণ্ডলী কর্মীদের নিজেদের কাজের জায়গায় ফিরতে বাধ্য করেছিল. তদন্তকারীদের মতে, এ ভবন সমাহার নির্মিত হয়েছিল “কমার্শিয়াল ব্যবহারের” জন্য, কারখানার জন্য নয়. এর নির্মাণের সময় যে মাল-মশলা ব্যবহৃত হয়েছিল, তা এমন চাপ সহ্য করতে সক্ষম ছিল না. বাংলাদেশের আইন ও শৃঙ্খলা রক্ষা বিভাগ ধ্বসে পড়া ভবনের মালিক মুহম্মেদ সোহেল রানা-কে গ্রেপ্তার করে ভারতের সাথে সীমানায়. বিভিন্ন তথ্য অনুযায়ী, তদন্তের কাঠামোতে কর্তৃপক্ষ গ্রেপ্তার করেছে ৮ থেকে ১২ জনকে, সেই সঙ্গে সেই ইঞ্জিনিয়ারকেও, যাকে আগে ডাকা হয়েছিল ভবনে দেখা দেওয়া ফাটলে বিপদের মাত্রা মূল্যায়ন করার জন্য.