মার্কিনী প্রশাসনের পরিচালকমণ্ডলী সোমবার সিরিয়ার পরিস্থিতি নিয়ে একসারি সাক্ষাত্ চালিয়েছে কয়েকটি প্রধান আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধিদের সাথে. পৃথক পৃথকভাবে অনুষ্ঠিত এ সব সাক্ষাতে অংশগ্রহণ করেছেন মার্কিনী উপ-রাষ্ট্রপতি জোসেফ বাইডেন, পররাষ্ট্র সচিব জন কেরি, পেন্টাগনের প্রধান চাক হেগেল, সিরিয়া মীমাংসা সংক্রান্ত রাষ্ট্রসঙ্ঘ ও আরব রাষ্ট্র লীগের বিশেষ প্রতিনিধি লাখদার ব্রাহিমি, আরব রাষ্ট্র লীগের প্রধান সচিব নাবিল আল-আরাবি, কাতারের প্রধানমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী হামাদ বেন জাসেম আল তানি. আরব রাষ্ট্র লীগের প্রতিনিধিদলের সাথে পরামর্শ শেষ হওয়ার পর সাংবাদিকদের সামনে বক্তৃতা দিয়ে পররাষ্ট্র সচিব জন কেরি জানান যে, বিশেষ করে, কথা হচ্ছে নিকট প্রাচ্যে সঙ্ঘর্ষ অতিক্রমের. তাছাড়া তিনি রাষ্ট্রসঙ্ঘ ও আরব রাষ্ট্র লীগের বিশেষ প্রতিনিধি লাখদার ব্রাহিমি-কে এবং সিরিয়ায় শান্তিপূর্ণ মীমাংসায় তাঁর প্রচেষ্টায় সমর্থন জানান. কাতারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ হামাদ বেন জাসেম আল তানি বৈঠকে সিরিয়ার পরিস্থিতি সাধারণ ভাবেও আলোচিত হয়েছিল কি না এ প্রশ্নের ইতিবাচক উত্তর দেন কিন্তু কোনো খুঁটিনাটি জানান নি. তিনি সীমিত থাকেন শুধু এ কথাতেই যে, ওয়াশিংটন সাক্ষাতের সমস্ত অংশগ্রহণকারী ইস্তাম্বুলে গৃহীত শেষ ঘোষণাপত্র সমর্থন করেছেন, যা তথাকথিত সিরিয়ার মিত্র গ্রুপের ২০শে এপ্রিলের বৈঠকে গৃহীত হয়েছিল. লাখদার ব্রাহিমি সাক্ষাত্ করেন মার্কিনী প্রতিরক্ষামন্ত্রী চাক হেগেলের সাথে. হেগেল ব্রাহিমি-কে ধন্যবাদ জানান সিরিয়ায় সঙ্কটের রাজনৈতিক মীমাংসা প্রস্তুত করার জন্য নির্দেশিত প্রচেষ্টার জন্য, এবং তাছাড়া তিনি সিরিয়াবাসীদের মানবতাবাদী সাহায্য দানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্রিয়াকলাপ আলোচনা করেছেন.