“হিন্দুস্থান টাইমস” সংবাদপত্রে এই খবর ভারতে রুশ রাষ্ট্রদূত আলেকজান্ডার কাদাকিনের উক্তি হিসাবে প্রকাশ করা হয়েছে. তিনি বলেছেন, “আমরা জানি যে, কি ধরনের চালাকি করা হয়েছে, যাতে এই সব ব্যবসার প্রক্রিয়াতে উল্টো পাল্টা করা যায়. কিছু ক্ষেত্রে টেন্ডারের শর্ত এমন ভাবেই করা হয়েছে, যাতে প্রয়োজনীয় ফল পাওয়া যায়. রাশিয়ার পক্ষ থেকে এই বিষয়ে হতে পারে যে, পরবর্তী কালে ভারতের সামরিক চুক্তিতে অংশগ্রহণের বিষয়ে অস্বীকার করা হতে পারে. রাশিয়া সামরিক বিষয়ে চুক্তির ক্ষেত্রে এরপর থেকে দুই দেশের মন্ত্রীসভার স্তরে সমঝোতায় আসতে পারে”.

সংবাদপত্রে লেখা হয়েছে যে, বর্তমানে রাশিয়ার ভারতে অস্ত্র সরবরাহের মোট চুক্তি মূল্যের পরিমান ২ হাজার কোটি ডলার. তারই সঙ্গে ইজরায়েল ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অস্ত্র ব্যবসায়ীরা বিগত পাঁচ বছরে ভারতে অস্ত্র ব্যবসায়ের বিষয়ে যথাক্রমে দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে.