রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন যে, রাশিয়ায় বেসরকারী কমার্শিয়াল সংস্থাগুলির কাজ সমর্থন করেছেন. তিনি উল্লেখ করেন, “বেসরকারী কমার্শিয়াল সংস্থাগুলি তাদের কাজের জন্য বিদেশ থেকে অর্থ পাওয়ায় কেউ বিরোধী নয়, তবে তারা যেন বলে: কোথা থেকে অর্থ এসেছে এবং কি কাজে তা খরচ করা হয়েছে”. তিনি মনোযোগ আকর্ষণ করেন এ বিষয়ে যে, “মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এমন আইন বলবত্ আছে ১৯৩৮ সাল থেকে এবং তা ব্যবহৃত হচ্ছে, তবে আমরা তা করতে পারি না কেন, এতে অ-গণতান্ত্রিক কি আছে?” ২০১২ সালের ২০শে জুলাই গৃহীত আইন অনুযায়ী, রাশিয়ায় বিদেশ থেকে অর্থ পাওয়া বেসরকারী কমার্শিয়াল সংস্থাগুলিকে “বিদেশী এজেন্ট” হিসেবে সরকারীভাবে নিজেদের স্থিতি উল্লেখ করতে হবে. বিদেশ থেকে অর্থ পাওয়া ৬৫৪টি বেসরকারী সংস্থা দেশে কাজ করছে. এ আইন গ্রহণের পরে শুধু চার মাসে তাদের অ্যাকাউন্টে জমা পড়েছে ২৮৩০ কোটি রুবল. রাশিয়ার নাগরিকদের সাথে “হট লাইন” সংলাপে ভ্লাদিমির পুতিন বিরোধীপক্ষের উপকারিতা স্বীকার করেন, যারা শাসন ব্যবস্থাকে নিয়ন্ত্রণ করছে, ভুল-ত্রুটির সমালোচনা করছে এবং সক্রিয় কাজকর্মের জন্য কর্তৃপক্ষ “চাপ দিচ্ছে”.