কাজান শহরে গ্রীষ্ম বিশ্ব ছাত্র ক্রীড়া প্রতিযোগিতা, মস্কো শহরে বিশ্ব অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশীপ, আর তারপরে সোচী শহরে শীত অলিম্পিক অবশ্যই দাবী রেখেছে নিরাপত্তার বিষয়ে ব্যবস্থা শক্তিশালী করার. রাশিয়ার ক্রীড়া মন্ত্রী ভিতালি মুতকো ঘোষণা করেছেন যে, বস্টন শহরে আন্তর্জাতিক ম্যারাথন চলার সময়ে যে অন্তর্ঘাত করা হয়েছে – এটা রাশিয়ার জন্যেও একটা বিপদের ঘন্টা, যে দেশে খুব শীঘ্রই সব বড় ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হতে চলেছে.

খেলা চলার সময়ে অন্তর্ঘাতের ঘটনা এই প্রথমবার বস্টন শহরেই শুধু হয় নি. ১৯৭২ সালে মিউনিখ অলিম্পিক হওয়ার সময়ে ইজরায়েলের জাতীয় দলের লোকদের প্রথমে বন্দী করে রেখে, তারপরে তাদের মধ্যে ১১ জনকে হত্যা করা হয়েছিল. ১৯৯৬ সালে অ্যাটালান্টা অলিম্পিক পার্কে বিস্ফোরণের ঘটনায় একজন নিহত ও ১০০ জনেরও বেশী আহত হয়েছিলেন. ২০০৮ সালে শ্রীলঙ্কায় এক সন্ত্রাসবাদী ম্যারাথনের সময়ে নিজেকেই বোমা সমেত ফাটিয়ে ১৫ জনের নিহত হওয়ার ও ৯০ জনের আহত হওয়ার কারণ হয়েছিল.

সন্ত্রাসবাদীদের জন্য যে, খেলাধূলার প্রতিযোগিতা একটা ভাল লক্ষ্য হতে পারে, তা রাশিয়ার শৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে সম্পূর্ণ ভাবেই হিসেবের মধ্যে আনার যোগ্য বলে মনে হয়েছে, এই কথা “ভীমপেল” নামের বিশেষ বাহিনীর ভেটেরান আনাতোলি এরমোলিন উল্লেখ করে বলেছেন:

“এটা ঠিকই যে, সন্ত্রাস প্রতিরোধের জন্য বেশীর ভাগ ব্যবস্থাই আমরা সোচী অলিম্পিকে দেখতে পাবো, কিন্তু কাজানের ইউনিভার্সিয়াডও এই কারণে ভাল প্রস্তুতি পর্ব হবে. আমার মূল্যায়ণ অনুযায়ী খুব সম্ভবতঃ খেলার প্রতিযোগীদের সুরক্ষা দেওয়া খুব ভাল করেই সম্ভব. বলা যাক অলিম্পিক ভিলেজের মধ্যে এটা খুবই সমাধান যোগ্য কাজ. তেমনই সমস্ত জায়গাতেও যেখানে খেলাধূলা হবে ও সম্পূর্ণ ভাবেই সেই এলাকা ও তার দিকে যাওয়ার মতো সমস্ত বড় রাস্তা জুড়েই”.

আগষ্ট মাসে হবে মস্কো বিশ্ব অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশীপ. তাতে তিন ধাপে নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হবে বলে উল্লেখ করেছেন রাশিয়ার অ্যাথলেটিক্স ফেডারেশনের সভাপতি ভালেন্তিন বালাখনিচিয়ভ, তিনি বলেছেন:

“এটা – রাষ্ট্রের স্তর, যেখানে রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা ব্যুরো ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কাজে লাগানো হবে. এর পরে মস্কো শহরের প্রশাসনিক স্তর, যাদের রয়েছে শহরের নিরাপত্তা বজায় রাখার জন্য কাঠামো. আর তিন নম্বর হল – খেলাধূলার কেন্দ্রের নিজস্ব নিরাপত্তা পরিষেবা ব্যবস্থা. এই ধরনের তিন স্তরের ব্যবস্থা মস্কোর মূল লুঝনিকি ষ্টেডিয়ামে নেওয়া হতে চলেছে. কিন্তু মস্কো শহরের চারটি নদীর তীর দিয়ে হওয়া ম্যারাথন দৌড়ের জন্য দরকার হবে নতুন রকমের নিরাপত্তার ব্যবস্থা করার”.

কাজানের গ্রীষ্ম ইউনিভার্সিয়াডের আয়োজকরাও বস্টন ট্র্যাজেডির অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নেবেন. প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা ইতিমধ্যেই তাতারস্থানের যুব মন্ত্রণালয়ের তরফ থেকে নেওয়া হচ্ছে. আর ১লা জুন থেকে সোচী অলিম্পিকের জায়গাতে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া চালু হয়ে যাচ্ছে. স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তথ্য বিভাগের খবর অনুযায়ী ২০১৪ সালের শীত অলিম্পিকের প্রায় তিরিশটি কেন্দ্র বিশেষ রকমের সুরক্ষা ব্যবস্থার মধ্যে রাখা হয়েছে.