হাজার হাজার জাপানবাসী, যাদের মধ্যে অধিকাংশই প্রাপ্তবয়স্ক, তাঁবু খাটিয়ে ডিজনিল্যান্ডের প্রধান প্রবেশপথের সামনে সারারাত প্রতীক্ষা করেছে ফটক খোলার অপেক্ষায়. সোমবার ঐ ডিজনিল্যান্ডের বয়স ৩০ বছর পূর্ণ হচ্ছে. পার্কের পরিচালক কোম্পানী ‘ওরিয়েন্টাল ল্যান্ড কোম্পানী গ্রুপ’ জানিয়েছে, যে ৩০-তম জন্মবার্ষিকীতে ৮০ হাজারেরও বেশি জাপানী দর্শকের প্রতীক্ষা করা হচ্ছে.

জাপানীদের কাছে ডিজনিল্যান্ড মামুলি বাচ্চাদের মজা যোগানো পার্কের চেয়ে অনেক বেশি আকর্ষক. ওখানে রোম্যান্টিক রাদেঁভ্যু হয় প্রেমিক-প্রেমিকাদের, পাণিগ্রহণের প্রস্তার দেওয়ার জন্য এটা আদর্শ প্রেক্ষাপট, পারিবারিক অবসরযাপনের সবচেয়ে জনপ্রিয় জায়গা.

তিন দশকের অস্তিত্বে ডিজনিল্যান্ডে এসেছে ৫৭ কোটি মানুষ. টোকিওর ডিজনিল্যান্ড ছিল ক্যালিফোর্ণিয়ার ডিজনিল্যান্ডের ‘প্রথম বিদেশী’ ভাই.