যদি দক্ষিণ কোরিয়া সংঘাতের রাজনীতি বর্জন না করে, তাহলে উত্তর কোরিয়া ক্যাসোন শিল্প তালুক একেবারেই বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দিয়েছে. এই ঘোষণা করেছেন বিশেষ তালুক পরিচালন বিভাগের প্রতিনিধি. তিনি যোগ করেছেন, যে নিজের শ্রমিকদের ক্যাসোন থেকে দেশে ফিরিয়ে নেওয়ার বিষয়ে পিয়ংইয়ংয়ের সিদ্ধান্ত হচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্ররোচনাপন্থী কার্যকলাপের প্রত্যুত্তর. ২০০৪ সালে চালু করা ক্যাসোন কমপ্লেক্সে সাম্প্রতিক কাল পর্যন্ত ১২৩টি নাতিবৃহত দক্ষিণ কোরিয়ার কোম্পানী কার্যকরী ছিল. সেখানে সাড়ে আটশোরও বেশি দক্ষিণ কোরিয়ার ও প্রায় ৫৪ হাজার উত্তর কোরিয়ার নাগরিক কর্মরত ছিল, যারা নিত্যাবশ্যকীয় পণ্যদ্রব্য উত্পাদন করতো.