শিশু ও কিশোর খেলাধূলার উন্নতির জন্য বিশেষ মনোযোগ দেওয়া দরকার. এই ব্যাপারে দৃঢ় বিশ্বাস করেন আইস হকিতে একাধিক বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ও অলিম্পিক চ্যাম্পিয়ন এবং জাতীয় সভার সদস্য ভিয়াচেস্লাভ ফেতিসভ. রেডিও রাশিয়ার বেতার তরঙ্গে তিনি মত দিয়েছেন যে, রাষ্ট্রের প্রাথমিক কাজ হওয়া উচিত নবীন প্রজন্মকে খেলাধূলার শিক্ষা দেওয়া.

যত বেশী সম্ভব অল্পবয়সীকেই খেলাধূলায় অংশ নিতে টেনে আনা উচিত্, তাহলেই একমাত্র আমরা খুবই সুস্থ নাগরিক পাবো ও ভবিষ্যতের চ্যাম্পিয়নদেরই দেখতে পাবো, এই রকমের একটা দৃঢ় বিশ্বাস নিয়ে তিনি বলেছেন:

“আমি বলতে পারি একেবারেই দ্ব্যর্থহীন ভাষায় যে, আজকের দিনে খেলাধূলা – এটা সফল নবীন যুবক তৈরী করার এক বিরল সম্ভাবনা, এটা সুস্থ জীবন যাপনের অভ্যাস, এটা দেশপ্রেমের বিষয়ে শিক্ষা. ইন্টারনেট থেকে ছেলেমেয়েদের টেনে বের করা, যেখানে তারা এক কৃত্রিম জীবনে বেঁচে রয়েছে, তার থেকে... আজ শুধু খেলাধূলাই পারে. আমি আজ রাজনীতিতে রয়েছি এগারো বছরের বেশী সময় ধরে, আমি নানা রকমের মানুষের সঙ্গে কথা বলি, আমি সেখানে বলি: আমরা কি তৈরী করব – আইস স্কেটিং রিঙ, সুইমিং পুল, ষ্টেডিয়াম, নাকি মাদক থেকে রেহাই পাওয়ার ক্লিনিক নাকি অল্পবয়সীদের জন্য জেল? আমি বলতে পারি যে, সেই সব জায়গায়, বিশেষত ছোটখাট শহরে, যেখানে আইস স্কেটিং রিঙ রয়েছে, সেখানে মাদকের নেশা কমছে ও কিশোরদের অপরাধের সংখ্যাও কমছে. তাই রাষ্ট্রের প্রয়োজন নেই নাগরিকদের কাছে গোল, পয়েন্ট, সেকেণ্ড অথবা স্বর্ণ পদকের সংখ্যা দিয়ে হিসেব দেওয়ার. আমাদের উচিত্ হবে পরিকাঠামো তৈরী করে দেওয়ার, সেই রকমের পরিস্থিতি তৈরী করে দেওয়া, যাতে বাচ্চাদের প্রশিক্ষক সহায়তা পান, শারীর বিদ্যার শিক্ষকরাও সাহায্য পান. এঁরাই খেলাধূলার বিষয়ে প্রধান ব্যক্তি”.

কোন সন্দেহ নেই যে, রাশিয়ার খেলোয়াড়দের বিজয় – এটা যুব সম্প্রদায়ের জন্য খুবই ভাল উদ্যোগী হওয়ার কারণ. আগামী বছরের ফেব্রুয়ারী মাসে রাশিয়ার সোচী শহরে হতে চলছে শীত অলিম্পিক. আর দেশের জাতীয় দল চেষ্টা করবে সব থেকে ভাল ফল করে দেখাতে. যেহেতু ফেতিসভ, তাঁর জীবনের বেশীর ভাগ সময়ই আইস হকির জন্য দিয়েছেন, তাই তিনি এখন খুবই মনোযোগ দিয়ে দেখছেন, দেশের জাতীয় দল নিয়ে কি করা হচ্ছে. অলিম্পিকের আগে রাশিয়ার হকি দলের প্রধান প্রশিক্ষক বিল্যালেতদিনভের সামনে খুবই কঠিন কাজ রয়েছে, তাই ফেতিসভ বলেছেন:

“আজ বিল্যালেতদিনভের জন্য প্রধান কাজ হল – এটা সোচী. এখানে মুখ্য নয় যে, আগামী বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশীপে কি ফল হতে চলেছে. এখন কাজ – তাদেরকে যোগাড় করা, যারা এই বছরে ভাল করে খেলেছে, সব থেকে ভাল খেলোয়াড়দের ও আবার করে পরীক্ষা করে দেখা সেই সব কম্বিনেশন বা জোট, সেই পাঁচ বা তিন জনের পারস্পরিক বোঝাপড়া, যা ট্রেইনারের মাথায় রয়েছে. বোধহয় বিল্যালেতদিনভের মাথা ব্যাথা হয়েছে, কারণ একই সঙ্গে অনেকগুলি দল মাথায় রাখতে হচ্ছে, তাদের মধ্যের যোগসাজশ ও ইত্যাদি. দলের মান খুব ভাল ও ট্রেইনার যথেষ্ট কড়া, পেশাদার ও সম্মানীয়. আমার ভাল লাগে দেখতে, তিনি কি ভাবে কাজ করেন. আর দলের খেলোয়াড়রা, যারা এখন দলে ঢুকছে, তারাও সকলেই রাশিয়ার দলের হয়ে খেলতে চায়, তার ওপরে প্রত্যেকেরই ইচ্ছা করে দেশে হওয়া অলিম্পিকে খেলতে. আমাদের প্রশিক্ষকদের পেশাদারীত্বের ব্যাপারে কোন রকমের প্রশ্নই নেই. অর্থাত্ কোন রকমের আশঙ্কা আমার মনে নেই – আমরা ভালই খেলবো. আর কোন জায়গা পাবো? যদি এটা প্রথম স্থান হয় – খুবই আনন্দের বিষয় হবে”.

উল্লেখ করব যে, সোভিয়েত দেশের জাতীয় আইস হকি দলের সঙ্গে, যারা সাতবার অলিম্পিকের চ্যাম্পিয়ন হয়েছে, তাদের তুলনায় ব্যতিক্রম হিসাবে রাশিয়ার জাতীয় দল, দুই বারের অলিম্পিক চ্যাম্পিয়ন হয়েছে, কিন্তু আপাততঃ সবচেয়ে উপরের ধাপে উঠে দাঁড়াতে পারে নি. তাই সোচী শহরে হতে যাওয়া ২০১৪ শীত অলিম্পিকের খেলোয়াড় ও তাদের ফ্যানদের খুবই বিশেষ রকমের আশা রয়েছে.