আলমা-আতায় আলোচনা প্রক্রিয়ায় ইরান আন্তরিকতা ও নমনীয়তা প্রদর্শন করতে বাধ্য এবং প্রমাণ করতে বাধ্য, যে তার পারমানবিক প্রকল্পের লক্ষ্যগুলি শান্তিপূর্ণ. বৃহস্পতিবার মাদ্রিদে বান কি মুন এই কথা বলেছেন. তিনি এই আশাপ্রকাশ করেছেন, যে ইরানের সাথে আন্তর্জাতিক মধ্যস্থতাকারী ছয় দেশের নতুন পর্বে আলোচনা সদর্থক ফল দেবে. সাধারণ সম্পাদকের কথায়, এটা জাতিসংঘের জন্য অন্যতম প্রধান আন্তর্জাতিক সমস্যা.

ইতিপূর্বে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ইগর মার্গুলোভ ঘোষনা করেছেন, যে মস্কো আশা করছে, যে ফেব্রুয়ারী মাসে ইরানকে ছয়পক্ষের পক্ষ থেকে দেওয়া প্রস্তাবগুলিই হবে ভাবী আলোচনার ভিত্তি. অন্যদিকে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আলেক্সান্দর লুকাশেভিচের কথায়, মধ্যস্থতাকারী ছয়পক্ষ এবং তেহেরান এখনো কোনো সমঝোতায় পৌঁছাতে পারেনি.

ইরানও সরকারীভাবে আশাপ্রকাশ করছে, যে ছয়পক্ষের সাথে আলোচনার ফলাফল সদর্থক হবে.