সিরিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলে বিরোধীপক্ষের পৃথক পৃথক দলের মাঝে সশস্ত্র সঙ্ঘর্ষ দেখা দিতে পারে, তবে শক্তিশালী কোয়ালিশন সরকার তা ঘটতে না দিতে পারে. এ সম্বন্ধে সোমবার মিশরে বলেছেন সিরিয়ার জাতীয় পরিষদের প্রতিনিধি জাবের আশ-শুফি. তাঁর কথায়, বিরোধীপক্ষের বিভিন্ন অংশের মাঝে সশস্ত্র বিরোধিতা গোটা সিরিয়ায় ছড়িয়ে পড়বে না. আশ-শুফি বলেন, রাষ্ট্রপতি বাশার আসদের পদত্যাগের পরে দেশে যদি শক্তিশালী সরকার গঠিত হয়, তাহলে অনুরূপ ঘটনা-বিকাশ এড়ানো সম্ভব. কাতারের রাজধানীতে আরব রাষ্ট্র লীগের সাম্প্রতিক শীর্ষ সাক্ষাতে সিরিয়ার বাহিনীর বিরোধিতা করা বিরোধীপক্ষকে অস্ত্রে সজ্জিত করা সম্পর্কে গৃহীত সিদ্ধান্ত সম্বন্ধে মন্তব্য করে আশ-শুফি উল্লেখ করেন যে, দোহা-তে “উক্ত সমস্যার বর্তমান অবস্থাই” শুধু সরকারীভাবে সূত্রবদ্ধ করা হয়েছে. তাঁর মতে, গুরুত্বপূর্ণ হল, “কি ধরণের অস্ত্র সরবরাহ করা হবে, কোন সব শক্তি তা পাবে এবং দেশের ভূভাগে তা কিভাবে বণ্টন করা হবে”. সিরিয়ার জাতীয় পরিষদ এবং সিরিয়ায় বিরোধী ও বিপ্লবী শক্তিগুলির জাতীয় কোয়ালিশনের পারস্পরিক সম্পর্কের কথায় এসে আশ-শুফি উল্লেখ করেন যে, সিরিয়ার জাতীয় পরিষদ আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে কোয়ালিশনের কার্যকলাপ সমর্থন করে. তাঁর কথায়, আরব রাষ্ট্র লীগের শীর্ষ সাক্ষাতে স্বীকৃতি পাওয়ার পরে সিরিয়ার বিরোধীপক্ষ রাষ্ট্রসঙ্ঘে কোয়ালিশনের স্বীকৃতি পাওয়ার জন্য প্রচেষ্টা সমাবেশ করতে চায়.