শনিবার উত্তর কোরিয়ার কেন্দ্রীয় টেলিগ্রাফ এজেন্সী ‘স্টাক’ প্রচার করেছে, যে উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যে সম্পর্ক যুদ্ধরত অবস্থায়. দুই কোরিয়ার মধ্যে সবরকম কথাবার্তা এখন থেকে এই অবস্থানের সাপেক্ষে হবে. ‘কোরিয় উপদ্বীপে পরিস্থিতি শান্তিও নয়, যুদ্ধও নয়, এই অবস্থা থেকে বেরিয়ে এসেছে’ – ঘোষনা করেছে ঐ রাষ্ট্রীয় টেলিগ্রাফ এজেন্সী.

দক্ষিণ কোরিয়ার সংবাদ মাধ্যমগুলি বলছে, যে উত্তর কোরিয়া অবিলম্বে আক্রমণ করা শুরু করবে না, সামরিক কর্তাব্যক্তিরা কিম চেন ঈনের চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় আছে.

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিরাপত্তা পরিষদের প্রতিনিধি ক্যাথলিন হাইডেন ঘোষনা করেছেন, যে দক্ষিণ কোরিয়ার সাথে যুদ্ধরত থাকার ঘোষনা উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে, ওয়াশিংটন গুরুত্ব সহকারে গ্রহণ করেছে. তিনি বলেছেন, যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র পুরোপুরি নিজেকে ও এশিয়ায় তার শরিক দেশগুলিকে সুরক্ষা করতে সক্ষম এবং উত্তর কোরিয়ার এই হুমকির বিরুদ্ধে বাড়তি ব্যবস্থা নেবে.