ইতালির পররাষ্ট্রমন্ত্রী জুলিও তেরতসি দুজন ইতালীয় নাবিককে ফের ভারতের কাছে হস্তার্পণ করার কারণে পদত্যাগ করেছেন. ঐ দুই নাবিককে ভারতে আদালতের সম্মুখে হাজির করা হবে. তাদের বিরুদ্ধে ভারতীয় জেলেদের হত্যা করার অভিযোগ হানা হয়েছে. পার্লামেন্টে ভাষণ দিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঘোষনা করেছেন, যে তিনি নাবিকদের ফের ভারতে পাঠানোর স্বপক্ষে সরকার গৃহীত সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ করেছিলেন, কিন্তু তার বক্তব্যে কর্ণপাত করা হয়নি. তেরতসি বলেছেন, যে তিনি নাবিকদের ও তাদের পরিবারের প্রতি সংহতি প্রকাশ করেই পদত্যাগ করছেন.

ইতালির নাবিকদ্বয় মাস্সিমিলানো লাতোররে ও সালভাতোরে জিরোনে গত শুক্রবার ভারতে ফিরেছে. এর আগে ইতালির পররাষ্ট্রমন্ত্রক ঘোষনা করছিল, যে ভোটাধিকার প্রয়োগ করার সুযোগ দেওয়ার জন্য ভারত যে নাবিকদের সাময়িকভাবে স্বদেশে ফেরার অনুমতি দিয়েছিল, তারা আর ভারতে ফিরবে না. এর জন্য দুদেশের মধ্যে সম্পর্কে চরম উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছিল. ভারত ইতালির রাষ্ট্রদূত দানিয়েল মানচিনির কাছে এর ব্যাখ্যা দেওয়ার দাবী করেছিল ও তাকে ভারতের ভূখন্ড ছেড়ে যেতে নিষেধ করেছিল ভারতীয় আদালত. পরে অবশ্য ইতালির সরকার ঘোষনা করে, যে নাবিকরা শেষপর্যন্ত ভারতে ফিরবে.

বিয়োগান্তক ঘটনাটি ঘটে ২০১২ সালের ফেব্রুয়ারী মাসে, যখন ইতালির নৌসেনারা কেরালা রাজ্যের উপকূলে স্থানীয় মাছধরা জেলেদের ভুলবশতঃ জলদস্যু ভেবে গুলি চালায়. ফলশ্রুতিতে ২ জন ধীবর নিহত হয়.