গণ প্রজাতন্ত্রী চিনের সভাপতি শী জিনপিনের সঙ্গে ক্রেমলিনে আলোচনার শেষে রাশিয়া রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন উল্লেখ করেছেন যে, রাশিয়া ও চিনের মধ্যে বহুমাত্রিক সহযোগিতা দুই রাষ্ট্রের জনসাধারণের মূল স্বার্থের দিকেই লক্ষ্য করে করা হয়েছে.

রাশিয়া প্রজাতন্ত্রের প্রধান বিশেষ করে উল্লেখ করেছেন যে, দুই দেশের নেতারা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়েছেন সমস্ত কিছুই করার জন্য, যাতে পরবর্তী কালে আর্থ-বাণিজ্য সহযোগিতা, মানবিক ও অন্যান্য যোগাযোগ বৃদ্ধি হয়. রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি একই সঙ্গে যোগ করেছেন যে, দুই পক্ষই মানসিক ভাবে পারস্পরিক বিনিয়োগ প্রকল্প গুলিকে প্রশ্রয় দেওয়ার জন্য তৈরী.

রাশিয়াতে গণ প্রজাতন্ত্রী চিনের সভাপতির সরকারি সফরের মধ্যে দুই পক্ষ এক গুচ্ছ গুরুত্বপূর্ণ চুক্তি করেছে জ্বালানী সংক্রান্ত সহযোগিতার ক্ষেত্রে. খনিজ তেল কোম্পানী রসনেফ্ত ও চিনের সিএনপিসি কর্পোরেশন রাশিয়া থেকে অগ্রিম অর্থের বিনিময়ে কাঁচা খনিজ তেল রপ্তানীর ক্ষেত্রে প্রধান শর্ত গুলি নিয়ে চুক্তি করেছে.

রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন একই সঙ্গে ঘোষণা করেছেন যে, ২০১৪-২০১৫ সাল হবে চিন ও রাশিয়ার মধ্যে যুব সম্প্রদায়ের বিনিময়ে বছর. এই উদ্যোগ নিয়েছেন চিনের সভাপতি শী জিনপিন. “আমরা সমস্ত কিছুই করব, যাতে আমাদের দুই দেশের যুব সম্প্রদায়ের মানুষরা স্বাধীন ভাবে আলাপ আলোচনা করতে পারেন”, - বলেছেন পুতিন. তিনি উল্লেখ করেছেন যে, বিগত বছর গুলিতে হওয়া বিশাল আকারের কাজকর্ম, যা সংস্কৃতি, শিল্প ও শিক্ষার ক্ষেত্রে করা হয়েছে, তাই সুযোগ করে দিয়েছে মানবিক ক্ষেত্রে সহযোগিতাকে গভীরতর করতে.